ময়লার ট্রাকে আইভীর মিছিল

- Advertisement -

নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেনকে সাথে নিয়ে প্রতীক নিতে এসেছিলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী। এসময় মেয়র প্রার্থী আইভীর মিছিলে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ট্রাকে করে কর্মী-সমর্থকরা এসেছেন। মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) বেলা ১১টায় জেলা রিটা‌র্নিং অফিসা‌রের কার্যালয়ে প্রতীক বরাদ্দের সময় এ দৃশ্য দেখে অনেকেই এটিকে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন বলে অভিযোগ করেন।

তবে প্রতীক পাওয়ার পর আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, আমি আচরণবিধির প্রতি সম্মান রাখি। আমি আচরণবিধি ভঙ্গ করি না।

আচরণবিধির ২২ নম্বর ধারায় বলা আছে, সরকারি সুবিধাভোগী অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি এবং কোনো সরকারি কর্মকর্তা বা কর্মচারী নির্বাচন পূর্ব সময়ে নির্বাচনী এলাকায় প্রচারণায় বা নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। তিনি যদি এ এলাকার ভোটার হন তাহলে শুধু ভোটকেন্দ্রে ভোট দিতে যেতে পারবেন। নির্বাচন পূর্ব সময়ে কোনো প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থী বা তার পক্ষে অন্য কোন ব্যক্তি, সংস্থা বা প্রতিষ্ঠান নির্বাচনী কাজে সরকারি প্রচারযন্ত্র, সরকারি যানবাহন, অন্য কোন সরকারি সুযোগ সুবিধা ভোগ এবং সরকারি কর্মকর্তা বা কর্মচারীগণকে ব্যবহার করতে পারবেন না।

এব্যাপারে রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহফুজা আক্তার বলেন, উনি (আনোয়ার হোসেন) উনার দলীয় প্রার্থীকে নিয়ে এসেছেন প্রতীক নেয়ার জন্য। উনি এখানে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হিসেবে আসেননি বলে আমাদের বলেছেন। উনাকে বিষয়গুলো জানিয়েছি এবং আজকের পর থেকে উনি কি করতে পারবেন আর পারবেন না তাও বলেছি।

তিনি প্রতীক বরাদ্দের আগে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, আমরা গত কয়েক দিন অভিযোগ পেয়েছি আচরণবিধি ভঙ্গের। আমরা দুজন প্রার্থীকে আচরণবিধি যথাযথ পালন না করায় শোকজ করেছি এবং প্রার্থীদের কাছে সহায়তা চাই। আশা করছি তারা আমাদের সহায়তা করবে এবং আমরা আজ থেকে এ ব্যাপারে সর্বোচ্চ কঠোর হব।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

পূর্ববর্তী সংবাদশামীমের পায়ে তৈমূর হাঁটে না
পরবর্তী সংবাদআইভীর পছন্দ হাতি !

সর্বশেষ

You cannot copy content of this page