‘মসজিদ-মাদ্রাসায় তিনি বুলডেজার চালাতে চেয়েছেন’: কামাল

তার রোষানল বা আক্রমণের মূল কেন্দ্রবিন্দু হচ্ছে মুসলিম বা ইসলাম। তিনি (আইভী) এই শহরে ইসলাম বিরোধী সকল কর্মকা-কে পৃষ্টপোষকতা করেছেন। আর মসজিদ, মাদ্রাসার জায়গা নিয়ে বিভিন্ন ধরণের ষড়যন্ত্র করেছেন।
বুধবার (২৯ ডিসেম্বর) সকালে এক মতবিনিময় সভায় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীকে ইঙ্গিত করে এ কথা বলেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল।
বাংলাদেশ ওলামা দলের নারায়ণগঞ্জ মহানগর শাখার সভাপতি হাফেজ মো. মামুনের সভাপতিত্বে ওই মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের স্বতন্ত্র প্রার্থী এড. তৈমূর আলম খন্দকার।
এটিএম কামাল বলেন, নারায়ণগঞ্জের অতিপ্রাচীন একটি সংস্থা হচ্ছে রহমতুল্লাহ মুসলিম ইনস্টিটিউট। বৃটিশ সরকারের এক মুসলিম প্রশাসক নারায়ণগঞ্জে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি দেখে ছিলেন, এই অঞ্চলের মুসলমানরা অবহেলিত। তখন পাঠাগারে মুসলমাদের প্রবেশ নিষেধ ছিল। তাই মুসলমানদের জ্ঞানের পরিধি বৃদ্ধির জন্য এই রহমতুল্লাহ মুসলিম ইনস্টিটিউট গড়ে তোলা হয়। সাবেক মেয়র দায়িত্ব পাওয়ার পরে একটি সভায় বলেছিলেন, রহমতুল্লাহ মুসলিম ইনস্টিটিউটের নাম থেকে মুসলিম শব্দটি বাদ দিতে। এ কথা শুনে সেদিন সভায় উপস্থিত অনেকেই স্তম্ভিত হয়ে উঠেছিলেন।
এটিএম কামাল বলেন, তার রোষানল বা আক্রমণের মূল কেন্দ্রবিন্দু হচ্ছে মুসলিম বা ইসলাম। তিনি এই শহরে ইসলাম বিরোধী সকল কর্মকা-কে পৃষ্টপোষকতা করেছেন। তিনি মাদ্রাসা-মসজিদের জায়গা নিয়ে, বিভিন্ন ধরণের ষড়যন্ত্র করেছেন। মুসজিদ-মাদ্রাসা হচ্ছে আল্লাহর ঘর, পবিত্র জায়গা। আমরাতো চাই, সারা নারায়ণগঞ্জের প্রতিটি ঘরকে মসজিদ বানিয়ে ফেলতে। আর আপনি মসজিদ মাদ্রাসাকে ভেঙ্গে ফেলতে বলেন, বুল্ডুজার চালিয়ে দিতে চান।
এটিএম কামাল আরও বলেন, আমরা মুসলমান, আমরা সকলেই মৃত্যুর আগে ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ’ বলতে চাই। আর উনি [সেলিনা হায়াৎ আইভী] মৃত্যুর আগে বলতে চান ‘জয় বাংলা’। নাউজুবিল্লাহ। কোন হিন্দু ভাইতো এই কথা বলবে না, সে তো তার ধর্ম অনুযায়ী, যেটা বলা ধরকার, সেটাই বলবে।
এসময় শ্লোগান উঠে, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, হাতির মালিক আপনি আল্লাহ। নাস্তিকের আস্তানা, বাংলাদেশে থাকবে না। নাস্তিকের আস্তানা, বাংলাদেশে রাখবো না।
এসময় উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এড. আবু আল ইউসুফ টিপু, ফতুল্লা থানা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি খন্দকার মনির হোসেন, ওলামা দল মহানগরের সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মো. শিব্বির, সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ মো. আব্দুল কাইউম প্রমুখ।

আরোও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ