তৈমূরেই বেকায়দায় আইভী

নাসিক নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই বেকায়দায় পড়ছেন সদ্য সাবেক মেয়র আইভী। এতদিন তার ড্যামকেয়ার ভাব থাকলেও সময়ে সময়ে তার রূপ বদলাচ্ছে চোখে পরার মত। যদিও মেয়র পদে ৭ জন বৈধ প্রার্থী হিসেবে ভোটের লড়াইয়ে নেমেছেন, তবে জনপ্রিয়তায় ও ভোটারদের মাঝে আলোচনায় তুঙ্গে রয়েছেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আইভী ও হাতি প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার। তবে এবার এক তৈমূরেই চরম বিপাকে পড়েছেন ড্যামকেয়ার আইভী।

কারন এবার তার প্রতিদ্বন্দিতা করছেন অত্যন্ত হেভিওয়েট প্রার্থী, বিচক্ষণ ও পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ তৈমূর আলম খন্দকার। গোটা শহরে যিনি ইতোমধ্যেই খেতাব পেয়েছেন জনতার প্রার্থী হিসেবে। বিএনপির চেয়ার পার্সন বেগম খালেদা জিয়ার একজন উপদেষ্টা হওয়ায় তার পরিচিতি শুধু মাএ নারায়ণগঞ্জের ভেতরেই আবদ্ধ নয়। দেশব্যপীও রয়েছে তার ব্যাপক পরিচিতি। তার সাথে যোগ হয়েছে, ক্লিন ইমেজ। যা তৈমূরের ঘাটিকে করেছে ঢের শক্তিশালী।

এদিকে প্রতীক বরাদ্দের পর কোমড় বেঁধে সব প্রার্থীরা নেমেছেন প্রচারণায়। যেখানেই যাচ্ছেন প্রার্থীরা প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন তারা। ভোটারদের অুুকুলে রাখতে প্রতিশ্রæতিও দিচ্ছেন নিজেদের মত করে। তবে স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম যেখানেই যাচ্ছেন প্রচারণায় কিংবা গুসংযোগে, সেখানেই জন¯্রােতের গণজোয়ার সৃষ্টি হচ্ছে তা রীতিমত চোখে পড়ার মত।

আজ ছুটির দিন শুক্রবার (৩১ ডিসেম্বর) সকাল ১০টা থেকেই নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের আলোচিত ২ মেয়র প্রার্থী তাদের প্রচারণায় নেমে পড়েন। নগরীর জামতলা এলাকায় প্রচারণা চালায় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী ও সিটি কর্পোরেশনের সিদ্ধিরগঞ্জের ৬ নং ওয়ার্ডের কদমতলী এলাকায় গুসংযোগ করেন স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার।

তৈমূরের গুসংযোগে ব্যপক জনসমাগম ঘটলেও আইভীতে নেতাকর্মী ছাড়া তেমন জনসাধারণের অংশগ্রহন চেখে পরেনি। তবে এবিষয়ে তিনি নিজে থেকেই সাংবাদিকদের বলেন, এটি এশটি অভিজাত এলাকা হওয়ায়, সকাল সকাল তারা বের হয়নি। তবে এর পরেও অনেকেই এগিয়ে এসেছেন, তাই নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের আসন্ন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকারের পক্ষে ব্যাপক গুসংযোগ করেছে বন্দর থানা বিএনপি সভাপতি হাজী নূর উদ্দিন আহাম্মেদসহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। শুক্রবার সকাল ১০টায় বন্দর থানার ১৯ নং ওয়ার্ডের মদনগঞ্জ, শান্তিনগর, সৈয়ালবাড়ী ঘাট, মদনগঞ্জ ইসলামপুর ও নয়াপাড়া এলাকায় ব্যাপক গুসংযোগ করেন নেতাকর্মীরা।

রাজনৈতিক বিশ্লেসকদের মতে, সুযোগ সন্ধানী আইভী, চুুরতার সাথে নির্বাচনের সময় দলীয় ভাই-বোনদের কাছে টানেন। তাদের খুশি করতে রাখেন মনোরঞ্জক বক্তব্য। যেই শামীম ওসমানকে বিগত বছরগুলোতে গডফাদার, সন্ত্রাসী তকমা লাগিয়েছেন আইভী। সে আইভী আবার নির্বাচনের সময় ভাই বানায়। আবার নির্বাচন শেষে গডফাদার। সেই ভাইয়ের মন খুশি করতে লোক দেখানো কবর জিয়ার করেছেন। যাতে ভাইয়ের মনে ঠাঁই পাওয়া যায়। শামীম-আইভীর এ মন কষাকষি ওপেন সিক্রেট হলেও, আওয়ামীলীগ সভানেত্রীকে খুশি করতে ও নির্বাচনী বৈতরণী পার করতে সুকৌশলে চালিয়ে যাচ্ছেন ছায়া যুদ্ধ। বিগত আমলে ড্যামকেয়ার আইভী পাশ করে গেলেও, এবার তা হবে নিন্ত্যান্ত দুর্বোধ্য।

বিগত আমলে ভাইকে ভাইয়ের সর্মথনের প্রতি ড্যামকেয়ার থাকলেও তৈমূরের জন¯্রােত ও তার প্রতি নেতা কর্মীদের সর্মথন দেখে, আইভীর ঘাটিতে চিন্তার কালো মেঘে ছেঁয়ে গেছে। তাই এবার ভাইকে ছাড়া গতি নাই। এবার আইভীর ভাইকেই চাই।

আরোও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ