আল্লাহ এবার জনতার বিজয় ঘটাবে : তৈমূর

- Advertisement -

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী (হাতি প্রতীক) অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার বলেছেন, নারায়ণগঞ্জসহ গোটা বাংলাদেশে এখন নির্বাচন নেই। এই নির্বাচনটা হল জনগনের সাথে আঠারো বছরের ব্যর্থতার লড়াই। এই নির্বাচনটা জনগনই করবে। বিভিন্ন ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে শ্রমিক দিনমজুরসহ বিভিন্ন খেটে খাওয়া মানুষজন যারা আছেন তারাই এই নির্বাচন করছেন।

শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) বন্দরে ২২ নাম্বার ওয়ার্ড এ জুমার নামাজ আদায়ের পর গণসংযোগে নেমে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমার শরীরটা কেটে টুকরো টুকরো করলো যে আওয়াজটা আসবে সে আওয়াজটার নাম বিএনপি। স্থানীয় নেতাদের সাথে আমার সম্পর্ক, পানি কাটলে দুই টুকরো হবে কিন্তু তৈমূর আলম খন্দকারের সাথে বিএনপির সম্পর্ক দুই টুকরো হবে না। এখানে বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলসহ সব আছে। তারা যা করেছে বুঝে শুনে করেছে। বিএনপির ভোট নৌকা মার্কায় যাবে না বরং অন্য মার্কার ভোট আমার কাছে আসবে এমন একটা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, আমি সাড়ে পাঁচ লক্ষ ভোটারেরই সমর্থন চাই। আওয়ামী লীগ কী ভোটার না, তারা কী এ শহরের নাগরিক না। এই প্রশ্নটা ঠিক না। প্রার্থী হিসেবে আমি সকলের কাছেই যাবো। আমি সকলের ভোট কামনা করেছি।

তৈমূর আরও বলেন, আমি এর আগে দলের নির্দেশে বসে গেছি। সেই নির্বাচনটা আমি করতে পারিনি। এবার জনগন সিটি করপোরেশন থেকে যেভাবে বঞ্চিত হয়েছে এই বঞ্চিত হওয়ার কারণে এবং সিটি করপোরেশন একটা সিন্ডিকেটে পরিত হয়েছে। এই সিন্ডিকেট ভাঙতে হবে। মাত্র দুই তিনজন কন্ট্রাক্টরের যে ঠিকাদারির সিন্ডিকেট এটা ভেঙে সকলের জন্য সুবিধা করতে চাই। সিটি করপোরেশন সবার।

তিনি বলেন, আমি সকলের ভোট চাই। আমি সবার সমর্থন পাচ্ছি। যারা সরকারি দল করে তদেরও বেশি ট্যাক্স দিতে হয়, তারাও পানি পাচ্ছে না, তাদেরও ট্রেড লাইসেন্সের ফি বাড়তি দিতে হচ্ছে। এখানে সরকারি দল বিরোধী দলের প্রশ্ন না। সিটির ট্যাক্সের বিনিময়ে জনগন সার্ভিস পাচ্ছে না।
তিনি বলেন, কিছু পোস্টার ছেড়া হয়েছে। সরকারি দল আচরনবিধি লঙ্ঘন করে নৌকাসহ বড় বিলবোর্ড বানিয়েছে। তারা জনসভা করছে বাইরের এমপিদের নিয়ে। এটা আচরনবিধির লঙ্ঘন। আল্লাহ এবার জনতার বিজয় ঘটাবে।

”হোল্ডিং ট্যাক্স, পানির বিল এবং ট্রেডলাইসেন্সসহ অন্যান্য ফি যে বাড়ানো হয়েছে এসব কমিয়ে এনে সিটি করপোরেশনকে গণমুখী সিটি করপোরেশন করতে হবে। যেখানকার সমস্যা এটা ওইখানকার জনগনের সাথে কথা বলে সমাধান করতে হবে। একটা গ্রান্ড মাস্টার প্ল্যান করতে হবে। শুধু কনস্ট্রাকশন করে টাকা পয়সা খরচ করলেই হবে না৷ সব দিক বিবেচনা করে জনমুখী একটা প্রশাসন আমরা তৈরি করতে চাই। যাতে সেবা সকলের দুয়ারে গিয়ে পৌঁছায়।

প্রচারণার সময় নাগরিক ঐক্যের কেন্দ্রীয় নেতা ও নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে আওয়ামীলীগের সাবেক এমপি এস এম আকরাম, জেলা ও মহানগর জাতীয় পাটির নেতৃবৃন্দ এবং স্থানীয় বিএনপির নেতাকর্মী ও সমর্থকদের অংশগ্রহণে নির্বাচনী প্রচারণাটি বিশাল শোডাউনে পরিনত হয়। ফুলের পাপড়ী ছিটিয়ে ও গলা ফুলের মামলা পড়িয়ে তৈমূর আলমকে বরণ করে নেন ২৫ নাম্বার ওয়ার্ডবাসী।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ

You cannot copy content of this page