সিইসি নুরুল হুদা

শামীম ওসমান শাস্তিযোগ্য বিধি লঙ্ঘন করেননি

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা বলেছেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে কোন শঙ্কা নেই। অবাধ সুষ্ঠু শান্তিপূর্ণ পরিবেশে মানুষ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন। যারা রাজনীতি করেন তারা তাদের মতো করে অনেক কথা বলতে পারেন, আমরা আমাদের মতো করে কাুজ করি। এতে যদি তাদের কোন সুবিধা হয়-হতে পারে, তবে আমাদের পক্ষ থেকে কোন রকমের শৈথল্য নেই।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) দুুপুরে নারায়ণগঞ্জ শহরের দেওভোগে মর্গ্যান বালিকা উচ্চ বালিকা বিদ্যাল ও কলেজে সিটি নির্বাচনের দায়িত্বে নিয়োগকৃত প্রিজাইডিং অফিসারদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

এ সময় সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের সংবাদ সম্মেলন আচরণবিধি ভঙ্গের মধ্যে পড়েছে কীনা সাংবাদিকরা জানতে চাইলে তিনি বলেন, সংসদ সদস্যরা প্রচারণায় অংশ নিতে পারবে না। প্রচারণায় নামলে আচরণবিধি লংঘন হবে। শামীম ওসমানের সংবাদ সম্মেলনটি আচরণবিধি ভঙ্গের মধ্যে পড়ে। তবে তাকে নোটিশ বা শাস্তির আওতায় আনতে হবে এমন আচরণবিধি লংঘ করেননি তিনি।

গত ইউপি নির্বাচনে প্রাণহানির প্রসঙ্গে প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা বলেন, গত নির্বাচনে লোক মারা গেছে সেটা কিভাবে আমি আপনাদের মাধ্যমে অনেকবার আপনাদের বলার চেষ্টা করেছি। কিভাবে নির্বাচন কমিশনের ওপর সেই দায়বদ্ধতা আসে-সেটা আমার হিসাব মিলে না।

তিনি বলেন, নির্বাচন হয়ে যায়, ভোটাররা যখন বাড়ি চলে যায়, যখন নির্বাচনী মালামাল নিয়ে দূরে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে যাওয়ার পথে শত শত লোক এসে তাদেরকে ঘেরাও করে তাদের আক্রমণ করে ব্যালট বাক্স নিয়ে যায়-এই জাতীয় ঘটনা ঘটে।

তখন নির্বাচন কমিশনের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্বে যারা থাকেন, তারা প্রচুর চেষ্টা করেন। সেখানে প্রতিরোধ করতে গিয়ে অনেক পুলিশ সদস্য রক্তাক্ত হন, নিহতও হন। সেখানে এ ব্যাপারে যারা প্রার্থী ও সমর্থকদের সহনশীলতা ও নির্বাচন কালীন আচরণবিধি অনুসরণ করা ছাড়া অন্য কোন উপায়ে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে না।

আরোও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ