ঢাকাবুধবার , ২ ফেব্রুয়ারি ২০২২
  1. আন্তর্জাতিক
  2. এক্সক্লুসিভ
  3. খেলা
  4. জাতীয়
  5. তথ্যপ্রযুক্তি
  6. নগর-মহানগর
  7. নাসিক-২০২১
  8. বিনোদন
  9. রাজনীতি
  10. লাইফ-স্টাইল
  11. লিড
  12. লিড-২
  13. লোকালয়
  14. শিক্ষা
  15. শিক্ষাঙ্গন

ঘুম থেকে না উঠায় খুন

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ স্টাফ
ফেব্রুয়ারি ২, ২০২২ ৬:১৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

শীতের ভোরে ঘুম থেকে না ওঠায় হেলপার আকাশকে (২১) ক্ষোভে হত্যা করে ট্রাকচালক টিপু। সেই লাশ গাড়িতে রেখেই ঠাণ্ডা মাথায় মালামাল আনলোড করিয়ে কুমিল্লা যাওয়ার পথে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে লাশ ফেলে যায়।

প্রায় ক্লু-লেস এই হত্যাকাণ্ডের মাত্র ১৬ দিনের মাথায় গ্রেফতার করা হয় ঘাতক ট্রাক চালক আরিফুর রহমান টিপুকে (৩০)। গত মঙ্গলবার নারায়ণগঞ্জ চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবান বন্দি প্রদান করে সেই হত্যাকাণ্ডের আদ্যোপান্ত বর্ণনা করেছে টিপু।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের মিডিয়া উইং হাফিজুর রহমান বুধবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, আদালতে স্বীকারোক্তি দেয়ার আগে তিন দিনের পুলিশ রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে টিপু স্বীকার করে সে নিজেই খুন করেছে ভিকটিম আকাশকে। আসামির দেয়া তথ্য ও শনাক্ত মতে হত্যাকাণ্ডের সময় ব্যবহৃত ট্রাক উদ্ধারপূর্বক জব্দ করা হয়।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম জানান, শুরুতে পুরো ঘটনাটি ক্লু-লেস থাকলেও ভিকটিমের পকেটে থাকা মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে মূলত উদঘাটন হয়েছে হত্যাকাণ্ডের কারণ। গত ১৬ জানুয়ারি দুপুরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে বন্দর উপজেলার জাঙ্গাল এলাকা থেকে আকাশের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

আকাশ কুমিল্লা জেলার কোতোয়ালি থানার সুজানগর এলাকার মোতালেব মিয়ার ছেলে। পেশায় একজন খণ্ডকালীন ট্রাক হেলপার।

হত্যাকাণ্ডের পর আকাশের বাবার দায়ের করা মামলার তদন্তকারী অফিসার কখনো চালক, কখনো হেলপার বা ব্যবসায়ী পরিচয়ে ছদ্মবেশে খুঁজতে থাকেন সেই চালককে। চালকের নাম পাওয়ার পর তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় পাওয়া যায় তার ঠিকানা। চাল ব্যবসায়ী সেজে কাঙ্ক্ষিত সেই চালকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। সময় অনুযায়ী ২৯ জানুয়ারি চলে আসে ট্রাকসহ চালক টিপু। এ সময় তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে আদালত সূত্র জানায়, নিজের দেয়া স্বীকারোক্তিতে টিপু জানান, গত ১৩ জানুয়ারি রাতে সে ও ভিকটিম আকাশ গাঁজা সেবন করে। তাদের ট্রাকে ছিল পুরাতন বই ও কাগজ যা রাজধানীর মাতুয়াইলে পৌঁছে দিতে হবে। কুমিল্লা থেকে রওনা হয়ে শুক্রবার রাতে তারা শিমরাইল স্ট্যান্ডে পৌঁছায়। সেখানে রাত্রিযাপন করে পরদিন ১৪ জানুয়ারি ভোরে আকাশকে ঘুম থেকে উঠে গাড়িতে থাকা মালামাল আনলোড করার নির্দেশ দেয় টিপু।

কিন্তু ঘুম থেকে উঠতে অস্বীকৃতি জানায় আকাশ। এতে চালক টিপু তাকে গালিগালাজ করে। প্রতি উত্তরে আকাশও গালি দিলে টিপু তার গলা চেপে ধরে। ট্রাক সিটের ভেতরেই হত্যা করে তাকে। হত্যা শেষে ট্রাক নিয়ে মাতুয়াইলে পণ্য খালাস করে পুনরায় কুমিল্লার দিকে রওনা দেয়। সেখানেই চলার পথে জুমার নামাজের পূর্বে মহাসড়কে আকাশের লাশ ফেলে পালিয়ে যায়।

আরোও পড়ুন

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।