আইভীর জামায়াত-বিএনপির কানেকশন তালাশ

- Advertisement -

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে পরাজিত মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে ঢাকার নেতারা কোনো ভূমিকা রাখতে পারে নাই। এখানে প্রধান ভূমিকা রেখেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর তাকে খুশি রাখতে গিয়ে নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার অযাচিতভাবে আমার লোকগুলোকে গ্রেফতার করে একটা আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে। আর নির্বাচন কমিশন ঠুঁটো জগন্নাথের মতো ইভিএম ব্যবহার করেছে। শুক্রবার নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি এসব কথা বলেন।

অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, আর আমার দল আমার সাথে যে ব্যবহার করেছে আমি মনে করি রাজা কখনও ভুল করে না। অতএব আমার দল ভুল করেছে এটা আমি একথা বলবো না। তবে আমি একটা বিষয় তল্লাশী করছি সেটা হলো শামীম ওসমান প্রায় সময়ই বলে থাকে আইভীর সাথে জামায়াত বিএনপির যোগসূত্র আছে।

শামীম ওসমানের কথাটা কতটুকু সত্য সেটাই আমি বুঝার চেষ্টা করছি। কারণ আমি বহিস্কার হয়ে যাবো সেটা জামালউদ্দিন কালুর কাছে আইভী বলে কিভাবে? ২০১১ সালে আমাকে বসিয়ে দিবে সেটা জাহাঙ্গীর কমিশনারের কাছে আইভী বলে কিভাবে?

তিনি আরও বলেন, শামীম ওসমান বলে জামায়াত বিএনপির সাথে আইভীর সম্পর্ক আছে আমি সেই সম্পর্কের যোগসূত্র কি খুঁজার চেষ্টা করছি। শামীম ওসমান কথা কতটুকু সত্য এবং কতটুকু অসত্য এটাই আমি খুঁজার চেষ্টা করছি।

তবে আমি দুইটা কাজ অব্যাহত রেখেছি একটা হলো যেখানেই বসি যেখানেই কথা বলি বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং খালেদা জিয়াকে যে অন্যায়ভাবে আটকিয়ে রেখেছে সে কথা বলি। আর ইভিএম জনগণের শত্রু। এই ইভিএম দিয়ে কোনোদিন জনগণের আশা আকাঙ্খার প্রতিফলন হবে না। এই ইভিএমের নির্বাচন যেন কোনো রাজনৈতিক দল না করে সে আহবান জানাই।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ

You cannot copy content of this page