বন্দরে গনধর্ষণ মামলার আসামী আশু বুদ্দিন আশু জামিনে

- Advertisement -

বন্দরে এক প্রতারক নারী দায়েরকৃত গনধর্ষণ মামলার মিথ্যা আসামী হয়ে দীর্ঘ দিন কারাভোগের পর অবশেষে ওই মামলার আসামী আশাবদ্দিন আশু এখন জামিন রয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। মিথ্যা মামলায় কারাভোগের ঘটনায় সোনাকান্দা পানির ট্যাংকি এলাকাবাসী মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। এলাকাবাসী জানিয়েছে গনধর্ষনের ঘটনার সাথে নিরিহ আশাবুদ্দিন আশুর কোন সংশ্লীষ্টতা নেই। অথচ পুলিশ গনধর্ষন মামলার ১নং এজাহারভ’ক্ত আসামী আলাউদ্দিনকে গ্রেপ্তার করতে ব্যার্থ হয়ে নিরিহ আশাবুদ্দিন আশুকে ওই মামলায় অন্তভ’ক্ত করে। এ ঘটনায় সোনাকান্দা পানির ট্যাংকি এলাকাবাসীর মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

এ ব্যাপারে গনধর্ষন মামলার আসামী আশাবুদ্দিন আশু ক্ষোভ প্রকাশ করে গনমাধ্যমকে আরো জানিয়েছে, আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আমি বিশ্বাস করি সত্য চিরকাল সত্য। একটি কুচক্রি মহল আমাকে সামাজিক ভাবে হ্যায় করাসহ অহেতুক হয়রানী করার জন্য বন্দর থানা দায়েরকৃত ১৪(৩)২২ নং গনধর্ষন মামলায় পুলিশ আমাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করে। এ মামলার এজাহারে আমার নাম নেই তারপরও আমি ওই মামলার আসামী। এদিকে গনধর্ষন মামলার প্রধান এজাহার ভ’ক্ত আসামী আলাউদ্দিনকে এখন পর্যন্ত খুঁজেই পায়নি পুলিশ। আমি প্রশাসনের কাছে সুবিচার দাবি জানাচ্ছি।

গনধর্ষন মামলায় উল্লেখ্য করা হয়েছে, গত ৭ মার্চ বিকেল ৬টায় আদম বেপারী আলাউদ্দিন (১৯) বছরের এক নারী যুবতীকে বিদেশে নেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে মোবাইল ফোনে মাধ্যমে ফরাজিকান্দা এলাকায় আসতে বলে। পরে ওই নারী তার কথা মত ফরাকিান্দা এলাকায় আসলে ওই সময় আদম বেপারী আলাউদ্দিন ওই নারীকে ওই দিন সন্ধ্যা পৌনে ৭টায় দিকে ফরাজিকান্দা এলাকা থেকে রিক্সাযোগে বন্দর উপজেলার হাজীপুর মেরিন ট্রেনিং সেন্টারের পাশে একটি ফাঁকা মাঠে নিয়ে আসে। পরে আদম বেপারী আলাউদ্দিনসহ ওই মাঠে পূর্ব থেকে অবস্থানরত অজ্ঞাত নামা আরো ৫ ধর্ষক ওই নারীকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পূর্বক গনধর্ষন করে।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ

You cannot copy content of this page