আইভীকে খোকন সাহা মামলার জবাব আইনী ভাবে দিবো

- Advertisement -

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ও নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সেলিনা হায়াৎ আইভীর দায়ের করা মামলায় ৮ সপ্তাহের জামিন পেয়ে নেতাকর্মী ও তাঁর সমর্থকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহাউচ্চ আদালতের মূল ফটকে দাঁড়িয়ে মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) গণমাধ্যমের কাছে দেওয়া প্রতিক্রিয়ায় এ কথা বলেন তিনি। এর আগে ২১ এপ্রিল মামলাটিতে খোকন সাহার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি করা হয়। এর প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জে নানা শ্রেণির ও পেশার মানুষ খোকন সাহার পক্ষে আন্দোলনে নামেন। নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

গণমাধ্যম কর্মীদের খোকন সাহা তাঁর প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এদেশে কেউ যদি ওয়াকফার সম্পত্তি দখল করে, মাদ্রাসার সম্পত্তি কিংবা দেবোত্তর সম্পত্তি দখর করে। আমি ৩২ বছর যাবত আইনী পেশায় আছি, সেই মামলা পরিচালনার জন্য আমি ফিস নেইনি। জিউস পুকুরটি তেমনই একটি দেবোত্তর সম্পত্তি। প্রায় ৪শ’ শতাংশ মতো। যা নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর পরিবারের মা-মামা ভাই ১৯৭৯ সালে ৬টি দলিলের মাধ্যমে আত্মসাথের চেষ্টা করে। ২০১৯ সালে নাম জারি করার সময় বিষয়টি নজরে আসে। তখন আমরা দেবোত্তর সম্পত্তি রক্ষার জন্য নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট মহসিন মিয়ার নেতৃত্বে প্রথম মামলা করি। এড. জুয়েলসহ আমরা অনেকেই এই দেবোত্তর সম্পত্তি রক্ষা করার জন্য কথা বলেছি। আর এই কথা বলার কারণেই আমার বিরুদ্ধে সাইবার অপরাধের অভিযোগ এনে মামলা করেন।

তিনি বলেন, আমি পরীস্কারভাবে বলতে চাই, আমি একজন আইনজীবী, আমি জননেত্রী শেখ হাসিনার কর্মী। জিয়াউর রহমানের আমলে, এরশাদের আমলে ও মেডাম খালেদা জিয়ার আমলে অনেক নির্যাতনের শিকার হয়েছি। শেখ হাসিনার কর্মীরা সকল সময়ে প্রতিবাদ করতে জানে। আমরা আরও প্রতিবাদ করবো, কারণ শেখ হাসিনার কর্মীরা মামলা হামলার ভয় পায় না। আমরা পরিস্কার ভাবে বলতে চাই, ১৯৭৫ সালের পরে আমরা শেখ হাসিনার মুখের দিকে তাকিয়ে রাজনীতিতে এসেছি। ওনি (আইভী) মামলা দিয়েছে আমরা মামলা মামলা দিয়ে আইনগত ভাবে জবাব দিবো।

ইতিমধ্যে বিজ্ঞ আদালত বলেছেন, এটা আইসিটি মামলা হয় না। তাই আদালত সার্বিক দিক বিবেচনা করে আমাকে জামিন দিয়েছেন। আমি সকলের কাছে কৃতজ্ঞ, যারা গত ৩/৪ দিন যাবত নারায়ণগঞ্জে আন্দোলন সংগ্রাম করছেন। আপনারা যখন আমাকে ডাকবেন আমি আপনাদের পাশে থাকবো।এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদল, বাংলাদেশ পূজা উৎযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডা. চন্দ্রনাথ পোদ্দার, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি রবিউল হোসেন, নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক এড. রবিউল আমীন রনী, নারায়ণগঞ্জ জেলা পূজা উৎযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শিপন সরকার শিখন, নারায়ণগঞ্জ মহানগর পূজা উৎযাপন পরিষদের সভাপতি উত্তম কুমার, জেলা আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি বিদ্যুৎ কুমার, পরিবেশ কর্মী সুজিত সরকার প্রমুখ।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ

You cannot copy content of this page