বন্দরে ৪ মাসের শিশুকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ

- Advertisement -

বন্দরে পারিবারিক বিরোধের জের ধরে ৪ মাসের শিশুকে দুধের সাথে বিষ মিলিয়ে হত্যার ব্যার্থ চেষ্টা চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে বড় ভাই ও তার স্ত্রী সিমা আক্তারের বিরুদ্ধে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বন্দর উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের চর-ঘারমোড়া এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। পরে স্থানীয় এলাকাবাসী মুমুর্ষ অবস্থায় উল্লেখিত শিশুটিকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি ঔষধের দোকানে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করেছে। এ ঘটনায় ভ’ক্তভোগী শিশুটির পিতা শুভ মিয়া বাদী হয়ে ঘটনার দুই দিন পর শনিবার দুপুরে পাষান্ড বড় ভাই তার স্ত্রীকে আসামী করে বন্দর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বন্দর উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের চরঘারমোড়া এলাকার সুলতান মিয়ার বড় ছেলে বখাটে মামুন ও তার দর্জাল স্ত্রী সিমা আক্তারের সাথে তারেই ছোট ভাই শুভ ও তার স্ত্রী রিমি আক্তারের সাথে পারিবারিক বিষয় নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে পূর্ব শত্রুতা চলছিল । ১নং বিবাদী সিমা বেগম প্রায় সময় সংসারে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ছোট ঝাল রিমি আক্তারকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে। গত ১২ মে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শুভ মিয়ার স্ত্রী তার ছেলে মোয়াজকে ঘুমে রেখে তার শ^াশুড়ী সাথে রান্না ঘরে কাজ করছিল। তখন অবুঝ শিশু মোয়াজ ঘুম থেকে চিৎকার দিয়ে উঠলে ওই সময় শিশুটির মা মোয়াজকে দুধ খাওয়ালে ওই সময় অবুঝ শিশুটি হাঠাৎ রক্ত বুমি শুরু করে। পরে পরিবারের অন্যান্য লোকজন এলাকাবাসীর সহতায় ওই শিশুটিকে মুমুর্ষ অবস্থায় স্থানীয় একটি ঔষধের দোকানে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করে।

এ ব্যাপারে শিশুটির পিতা শুভ মিয়া গনমাধ্যমকে জানায়, ১৭ মাস ধরে বিয়ে করেছি। বিয়ের পর থেকে ভাবি সিমা বেগম ও আমার বড় ভাই মামুন প্রায় সময় আমার স্ত্রী রিমি বেগমকে মানসিক ভাবে নির্যাতন করে আসছে। এ নিয়ে আমার ও বড় ভাইয়ের সাথে বিরোধ সৃষ্টি হয়। গত বৃহস্পতবার যে কোন সময়ে উল্লেখিত বিবাদীগন আমার ছেলে দুধের পাত্রে বিষ প্রয়োগ করে হত্যার চেষ্টা চালায়। এ ঘটনার পর থেকে পাষান্ড ভাই ও তার স্ত্রী পলাতক রয়েছে। অভিযোগ পেয়ে মদনগঞ্জ ফাঁড়ী পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ

You cannot copy content of this page