ঢাকামঙ্গলবার , ২৪ মে ২০২২
  1. আন্তর্জাতিক
  2. এক্সক্লুসিভ
  3. খেলা
  4. জাতীয়
  5. তথ্যপ্রযুক্তি
  6. নগর-মহানগর
  7. নাসিক-২০২১
  8. বিনোদন
  9. রাজনীতি
  10. লাইফ-স্টাইল
  11. লিড
  12. লিড-২
  13. লোকালয়
  14. শিক্ষা
  15. শিক্ষাঙ্গন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

জীবনের মূল্য টাকা দিয়ে হয় না : নৌ এসপি

আবু বকর সিদ্দিক
মে ২৪, ২০২২ ৬:২২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নারায়ণগঞ্জ নৌ পুলিশের পুলিশ সুপার (এসপি) মিনা মাহমুদা বলেছেন, আমাদের দেশে অনেক বড় নৌপথ রয়েছে। অনেক দেশে নদীও নেই৷ আমাদের লাখ লাখ জনগণ এ পথে যাতায়াত করে, এখানে পন্যও পরিবহন করা হয়। এখন এ নৌপথের নিরাপত্তার বিষয়ে যদি আমরা গুরুত্ব না দেই তাহলে আমাদের সকলেরই ক্ষতি হবে। আমি মনে করি এখানে কয়েটি বিষয় রয়েছে। নিরাপদ জলপথ, আমাদের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি দেখতো হবে। কারণ নদী পথে চুরি ছিনতাই হলে মানুষ ভাববে এখানে চুরি ডাকাতি হচ্ছে আমি যাবো না। পণ্যের কার্গোতে যদি ডাকাতি হয় তাহলে মানুষ অন্য পথ খুঁজবে। তাই আমরা এদিকটা অনেক গুরুত্ব দিয়ে দেখছি।

“প্রশিক্ষিত জনবল ও নিরাপদ জলযান নৌ নিরাপত্তায় রাখবে অবদান” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে মঙ্গলবার ২৪ মে দুপুরে নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দর টার্মিনালে নৌ নিরাপত্তা সপ্তাহ ২০২২ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মিনা মাহমুদা।তিনি বলেন, আমরা চাঁদাবাজদের এ্যারেস্ট করেছি। এর ফলে বিষয়টা অনেকটা কন্ট্রোলে এসেছে। এখন এখানে প্রশিক্ষিত জনবলও থাকতে হবে। যতগুলো দুর্ঘটনা ঘটেছে সেখানে আমরা দেখেছি দক্ষ জনবল ছিল না। আর জলযান যদি ঠিক না থাকে সেটার কারনেও দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তখন এসকল জলযান চালানো উচিত না।

নিরাপদ নৌ পথের জন্য মালিক পক্ষের যেমন দায়িত্ব আছে, চালক পক্ষেরও দায়িত্ব আছে এবং যাত্রী ও আমাদেরও দায়িত্ব আছে। চালকদের দায়িত্ব একটু সুষ্ঠু জলযান পানিতে নামাতে হবে, জাহাজে পর্যাপ্ত বয়া থাকতে হবে, গভীর লোঙ্গর থাকতে হবে। অধিকাংশ সময় এগুলো থাকেনা। পাশাপাশি চালকদেরও সুদক্ষ হতে হবে। আমি আসার পরে যে বড় দুটি দুর্ঘটনা ঘটেছে সেগুলোতে দেখেছি জাহাজে ওয়াচম্যান ছিল না। ওয়াচম্যান থাকলে এ সমস্যা হত না। জাহাজের মাস্টাররা বলেছে আমরা লঞ্চই দেখিনি। যাত্রীদেরও সমস্যা রয়েছে। তারা নিয়ম না মেনে লঞ্চে ওঠে। অতিরিক্ত ভীড়ের কারনে লঞ্চ ডুবে যায়। সুতরাং আমাদের সকলকে সচেতন হতে হবে। শীতের সময় একটি দুর্ঘটনা ঘটেছিল লঞ্চের সাথে ডিঙ্গি নৌকার। কুয়াশার কারণে দুর্ঘটনাটি ঘটে। তাহলে আমরা কেন নিয়ম কানুন মানি না। এতগুলে জীবন নিয়ে আপনারা চলাচল করছেন। আপনাদের অবশ্যই সচেতন হতে হবে। রেজিস্ট্রেশন বিহীন বাল্কহেডের সংখ্যা কত আমরা কেউই হয়ত বলতে পারব না। বাল্কহেড গুলো যেভাবে চলে রাতের বেলায় কিছু দেখাই যায় না৷ এটা এত নিচু থাকে। এগুলোর ওপর দিয়ে পানি যায়। আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি। রেজিস্ট্রেশন বিহীন বাল্কহেড চলতে দেয়া হচ্ছে না। আমার মনে হয় পর্যাপ্ত লাইফ জ্যাকেট রাখতে হবে। শুধু বয়া দিয়ে কাজ হবে না। এগুলো যাত্রীদের হাতের কাছে থাকা উচিত। অতিরিক্ত যাত্রী ও মালামাল আপনারা নিবেন না। জীবনের মূল্য কখনও টাকা দিয়ে পাওয়া যাবে না। আমরা অতিরিক্ত যাত্রী বহন করব না। অনেকে বলেছে রেজিস্ট্রেশন করতে অনেক টাকা লাগে। আমরা এক কোটি টাকা দিয়ে যদি একটি জলযান নামাতে পারি তাহলে পাঁচ লাখ টাকা দিয়ে রেজিস্ট্রেশনও করতে পারব। বিআইডব্লিউটিএ’র নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের যুগ্ম পরিচালক শেখ মাসুদ কামালের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নৌ পুলিশ নারায়ণগঞ্জ অঞ্চলের পুলিশ সুপার মিনা মাহমুদা।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিআইডব্লিউটিএ’র নারায়ণগঞ্জ ডিইপিটিসি’র (ডেক ও ইঞ্জিন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র) অধ্যক্ষ ক্যাপ্টেন মো: শাহজাহান, বাংলাদেশ লঞ্চ মালিক সমিতি কেন্দ্রীয় সহসভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি বদিউজ্জামান বাদল। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিআইডব্লিউটিএ’র নারায়ণগঞ্জ নৌ নিট্রা বিভাগের উপপরিচালক বাবু লাল বৈদ্য, বিআইডব্লিউটিএ’র নারায়ণগঞ্জ সিবিএ চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান, বাংলাদেশ জাহাজী শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সেক্রেটারি সবুজ শিকদার, মাহমুদ হোসেন, জাহাঙ্গীর হোসেন প্রমুখ।

আরও পড়ুন

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।