ঢাকারবিবার , ২৯ মে ২০২২
  1. আন্তর্জাতিক
  2. এক্সক্লুসিভ
  3. খেলা
  4. জাতীয়
  5. তথ্যপ্রযুক্তি
  6. নগর-মহানগর
  7. নাসিক-২০২১
  8. বিনোদন
  9. রাজনীতি
  10. লাইফ-স্টাইল
  11. লিড
  12. লিড-২
  13. লোকালয়
  14. শিক্ষা
  15. শিক্ষাঙ্গন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ফতুল্লায় মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণে চাচা-ভাতিজা

আবু বকর সিদ্দিক
মে ২৯, ২০২২ ৬:৪১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ফতুলার দাপায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে নিহত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী বোমা লিপু নিহতের পর নিহতের ভাই শাহিন ওরফে ডাকাত শাহিন ও আলামিন ওরফে ভাতিজা আলামিন নিয়ন্ত্রণ গ্রহন করেছে দাপা, শিয়াচর, রেল স্টেশন,পিলকুনী, ব্যংক কলোনী জোড়পুল এলাকার বৃহত্তর মাদক বাজার।এই দুই মাদক ব্যবসায়ীর হয়ে মাদক বেচা-কেনায় সক্রিয় রয়েছে প্রায় অর্ধ শতাধিক সেলসম্যান। আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযান কখনো কখনো মাদক নিয়ে গ্রেফতার হলেও এই দুই শির্ষ মাদক ব্যবসায়ী রয়ে যায় প্রশাসনের ধরা ছোয়ার বাইরে। তাছাড়ামাদকের এই বিশাল বাজার নিয়ন্ত্রণে তাদের রয়েছে উঠতি বয়সী এক শ্রেনীর মাদকাসক্ত সন্ত্রাসী বাহিনী। তাদের নিকট থেকে সুবিধা নিয়ে সকল প্রকার সহোযোগিতা করে আসছে বিশেষ পেশার একাধিক ব্যক্তি সহ থানা পুলিশর একাধিক সোর্স এমনটাই অভিযোগ স্থানীয়বাসীর।

সূত্রে জানা যায়, মাদক সম্রাট ডাকাত শাহিন ও তার ভাতিজা আলামিন প্রকাশ্যে জমজমাট হিরোইনের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। যা দেখে পথচারীরা হতভম্ব। এভাবে প্রতিদিন এ এলাকার মাদক ব্যবসায়ীরা প্রকাশ্যে মাদক বিক্রি করছে।

জানা গেছে, ফতুল্লা রেলষ্টেশনসহ দাপা ইদ্রাকপুর সহ আশপাশ এলাকা জুড়ে গাঁজা,ইয়াবা ট্যাবলেট,ফেনসিডিলের পাশাপাশি হরদমে চলছে মরণ নেশা হেরোইন। যা প্রকাশ্যে বিক্রি করছে মাদক ডাকত শাহিন ও ভাতিজা আলামিন । আর এসকল মাদক ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে থানা পুলিশের সোর্স পরিচয় দিয়ে নগদ অর্থ নিয়ে তাদেরকে সহযোগিতা করে বিশেষ পেশার ব্যক্তি ও থানা পুলিশের সোর্স। মাঝে মধ্যে মাদক সেবনকারীদের পুলিশ ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর দিয়ে গ্রেফতার করিয়ে কৃতিত্ব দেখানোর চেষ্টা করছে সোর্সরা। কিন্তু অধরা থেকে যাচ্ছে প্রকৃত মাদক ব্যবসায়ীরা।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, চাচা ডাকাত শাহিন ও আলামিন ফতুল্লা রেলস্টেশন, পাইলট স্কুল ও দাপা ইদ্রাকপুর,ব্যাংক কলোনী, পিলকুনী,জোড়পুল,আলীগঞ্জ মাদ্রাসা রোড সহ আশপাশ এলাকায় জমজমাট হিরোইনের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। সাম্প্রতিক সময়ে মাদক নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের চিন্থিত সোর্স পান্না কে এই দুই শির্ষ মাদক ব্যবসায়ী তাদের সহোযোগিদের নিয়ে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হাতের রগ কেটে দেয় একই সাতে ভেঙ্গে ফেলে দুই পা। এ বিষয়ে আহতের স্ত্রী মামলা দায়ের ও করেন।এ ছাড়া রেল স্টেশন,পিলকুনী,জোড়পুল এলাকায় এই দুই মাদক ব্যবসায়ী ছাড়া ও বাবু ওরফে শেরু বাবু এবং সাজ্জাদ নামক দুই মাদক ব্যবসায়ীর নিয়ন্ত্রণের রয়েছে ফেনসিডিল,গাজাঁর বাজার।

আরও পড়ুন

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।