ঢাকাসোমবার , ৩০ মে ২০২২
  1. আন্তর্জাতিক
  2. এক্সক্লুসিভ
  3. খেলা
  4. জাতীয়
  5. তথ্যপ্রযুক্তি
  6. নগর-মহানগর
  7. নাসিক-২০২১
  8. বিনোদন
  9. রাজনীতি
  10. লাইফ-স্টাইল
  11. লিড
  12. লিড-২
  13. লোকালয়
  14. শিক্ষা
  15. শিক্ষাঙ্গন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

খালেদার নেতৃত্ব জিয়ার অভাব পূরণ করেছে

আবু বকর সিদ্দিক
মে ৩০, ২০২২ ৫:৫০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

মহান আল্লাহর কৃপায় আমার উপর যে হামলা হয়েছিলো, তা থেকে রক্ষা পেয়েছি। আপনাদের দোয়া এবং ভালোবাসায় আমি সুস্থ হয়ে আবারও আপনাদের মাঝে ফিরে আসতে পেরেছি। এই সিদ্ধিরগঞ্জের প্রতিটি ওয়ার্ড ও পাড়া-মহল্লার সব মসজিদ ও মাদ্রাসায় আমার জন্য দোয়া করেছেন। আমি আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ। আপনারা আরো দোয়া করবেন যেনো আমি পরিপূর্ণ সুস্থ হয়ে আমার এই বাকি জীবনটা আপনাদের পাশে ও শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আদর্শে গড়া এই দল, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের ক্ষুদ্র কর্মী হিসেবে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত যেনো এই দলের জন্য কাজ করতে পারি। সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৪১তম শাহাদাৎ বার্ষিকীতে সোমবার (৩০ মে) সকালে এ কথা বলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সদস্য সচিব অধ্যাপক মামুন মাহমুদ।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৪নং ওয়ার্ড বিএনপি ও অঙ্গ-সংগঠনের আয়োজনে আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করা হয়। এছাড়াও সেখানে রান্না করা খাবার বিতরণের আয়োজন করা হয়েছে। অধ্যাপক মামুন মাহমুদ বলেছেন, ৪১ বছর পূর্বে এই রকম একটি দিনে আমাদের প্রাণ প্রিয় নেতা মহান স্বাধীনতার ঘোষক, বহু দলিয় গণত্রন্ত্রের প্রবক্তা, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের প্রতিষ্ঠাতা ও সফল রাষ্ট্রপতি শহীদ জিয়াউর রহমান চট্টগ্রামের সার্কিট হাউজে ঘাতকদের হাতে নিহত হয়েছিলেন। যারা স্বনির্ভর বাংলাদেশকে দেখতে চায় নাই, যারা আত্মনির্ভশীল জাতি হিসেবে এই বাংলাদেশকে দেখতে চায় নাই, তাদের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে তৎকালীন সময়ের বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা, জনপ্রিয় রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানকে হত্যা করিয়ে ছিলো। কিন্তু তিনি নিহত হলেও তার রেখে যাওয়া যে আদর্শকে বুকে ধারণ করে, তাঁর সহধর্মিণী বেগম খালেদা জিয়া যখন নেতৃত্বে আসলেন, আবার তার সেই শূন্যতা অনেকটা পূরণ হয়।

মামুন মাহমুদ বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বেই মানুষ একটি সুখি সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ দেখার স্বপ্ন দেখেছিলো এবং খুব সুন্দর ভাবেই দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন। কিন্তু ১/১১ একটি কুচক্রি মহল, সেনাবাহিনীর কিছু দুস্কৃতিকারী ও সেনা সমর্থিত কিছু কুচক্রি মহল দেশটাকে দখল করে দু’টি বছর শাসন করেছে। এবং তাদের সঙ্গে আওয়ামী লীগের যে, আত্মাত ছিলো। সেই আত্মাতের মাধ্যমে ২০০৮ সালে একটি সাজানো নির্বাচনের মধ্য দিয়ে আবারও আওয়ামী লীগের হাতে রাষ্ট্র ক্ষমতা ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। ষড়যন্ত্রের মধ্য দিয়ে ২০০৮ মালে যে ক্ষমতায় এসেছিল, তা আজও বিদ্যমান। সেই ষড়যন্ত্রের ফলই ২০১৪ সালে একটি এক তরফা নির্বাচন, সেই নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহন করে নাই। তারপরেও তারা এত ভীত ছিলো, সংখ্যা ঘরিষ্ঠ যে আসন তারা বিনা ভোটে নির্বাচিত করে। সংসদের ৩শ’ আসনের মধ্যে ১শ’ ৫৩টি আসন তারা বিনা ভোটে দখল করে নিয়ে গেছিলো। এরপর বাকি আসনগুলোতে একটি সাজানো নির্বাচন করেছে।

মোহাম্মদ নুরুজ্জামানের সার্বিক তত্বাবধায়নে এ সময় উপস্থিত ছিলেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানা বিএনপির আহবায়ক আব্দুল হাই রাজু, সদস্য সচিব মো. শাহ আলম হিরা, যুগ্ম আহবায়ক মো. রিয়াজুল ইসলাম, নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাবেক সহ স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক কবির হোসেন, ৪নং ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আহসান খলিল শ্যামল। মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন ও সহ সাধারণ সম্পাদক সম্রাট আকবরসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

আরও পড়ুন

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।