রূপগঞ্জে শিক্ষার্থীকে অপহরণের চেষ্টা

রূপগঞ্জে গভীর রাতে তোলারাম কলেজের ডিগ্রী ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী শামীমা আক্তারকে তার বসত বাড়ি থেকে উঠিয়ে অপহরণের চেষ্টা ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) গভীর রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার তারাব পৌরসভার দিঘী বরাব এলাকায় ঘটে এ ঘটনা। এ বিষয়ে শিক্ষার্থী শামীমা আক্তার বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগসূত্রে জানা যায়, উপজেলার তারাব পৌরসভার যাত্রামুড়া দিঘীবরাব এলাকার বিল্লাল হোসেনের মেয়ে শামীমা আক্তারকে দীর্ঘদিন যাবৎ কলেজে আসা-যাওয়ার পথে একই এলাকার ইউনুসের ছেলে ইলিয়াস(২৫), সাত্তারের ছেলে হাশেম ওরফে ডাকাত হাশেম (৪৫), মৃত ওমর মুন্সীর ছেলে মনির (৩৫), ইউনুসের ছেলে ইসমাইল বিভিন্ন ধরনের কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। সন্ত্রাসীদের কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তারা শামীমাদের বসতবাড়িতে রাতে ইট,পাথর দিয়ে ডিল ছুড়ে আতংক সৃষ্টি করতো।

গত ২৩ জুন বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে শামীমা আক্তার বাথরুমে যাওয়ার জন্য ঘর থেকে বের হলে বাড়ির পাশে ওৎ পেতে থাকা ওই সন্ত্রাসীরা শামীমাকে জোরপূর্বক উঠিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। শামীমার ডাক-চিৎকারে তার পরিবারের লোকজন ঘর থেকে বেরিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা তাদের গলায় ধারালো রামদা ধরে এবং শামীমার শ্লীলতাহানি ঘটায়। এসময় শামীমা কৌশলে ৯৯৯ এ কল দেয়। আর সন্ত্রাসীরা এটা বুঝতে পেরে তাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে এবং এ বিষয়ে কোনো মামলা করলে তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানিসহ ককটেল দিয়ে বাড়ি-ঘর উড়িয়ে দিবে ও প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়।

এ বিষয়ে ইলিয়াসের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, গত রাতে শামীমাদের সাথে আমাদের ঝগড়া হয়েছে। আমি খারাপ এটা সত্য। তবে তাকে উঠিয়ে নেয়ার জন্য আমরা যাইনি। এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এফ এম সায়েদ বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ