খুলে গেল স্বপ্নের দখিনা দুয়ার

প্রমত্তা পদ্মার বুকে মাথা উচুঁ করে দাঁড়িয়ে আছে পদ্মা সেতু। এই সেতু বাঙালির প্রত্যাশা আর স্বপ্ন পূরণের সৌভাগ্যের ডালা নিয়ে দখিনের দুয়ার খুলে দিয়েছে। নিজস্ব অর্থায়নে তৈরী সেতুর দৈর্ঘ ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার হলেও এর সুফল পাবে গোটা দেশ। বহুল কাঙ্খিত বাঙালির স্বপ্ন ও সাহসের প্রতীক এই পদ্মা সেতুর শুভ উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই সেতু শুধু দক্ষিন বঙ্গের মানুষের জন্য আশ্বির্বাদ নয়, বরং গোটা দেশ ও অদম্য বাঙালি জাতির সামর্থ্যের জানান দিয়েছে গোটা বিশ্বে। তবে সেতুর উদ্বোধনকে ঘিরে দক্ষিন বঙ্গের মানুষ বিশেষ করে বরিশাল ও খুলনা বিভাগের জনতা ঈদের আমেজে রয়েছে। সেখানে বেশ কয়েকদিন যাবৎ তারা নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে উদযাপন করেছে।

জানা গেছে আগামি সাত দিনও বিভিন্ন জেলায় বর্নাঢ্য অুনষ্ঠানের আয়োজন করা হবে।আজ শনিবার (২৫ জুন) দুপুর ১২টার দিকে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া পয়েন্টে উদ্বোধনী ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর উদ্বোধন ঘোষণা করেন। প্রধানমন্ত্রী মাওয়া প্রান্তে উদ্বোধনী ফলক ও ম্যুরাল-১ উন্মোচন করে মোনাজাতে অংশ নেন। এর আগে মাওয়ায় সুধী সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য দেন। বক্তব্যের শুরুতে তিনি দেশবাসীকে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানান।

প্রধানমন্ত্রী বক্তব্যের শুরুতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ৭৫ সালের ১৫ আগস্ট তাঁর পরিবারের নিহত সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। তিনি দেশবাসীর প্রতি ভালোবাসা ও কৃতজ্ঞতা জানান। শেখ হাসিনা পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজের সঙ্গে যুক্ত সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। নিজেদের টাকায় পদ্মা সেতু নির্মাণের সিদ্ধান্ত জানানোর পর বাংলাদেশের মানুষ যেভাবে পাশে দাঁড়িয়েছে, সে কথা স্মরণ করেন প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি বাংলাদেশের মানুষকে স্যালুট জানাই।

এর আগে সকাল সাড়ে ৯টায় ঢাকার তেজগাঁওয়ের পুরাতন বিমানবন্দর থেকে হেলিকপ্টারে রওনা হয়ে ঠিক ১০টায় মাওয়ায় আয়োজিত সুধী সমাবেশের মঞ্চে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী।দেশের সবচেয়ে বড় এ যোগাযোগ অবকাঠামোর উদ্বোধন উপলক্ষে পদ্মার দুই তীরের পাশাপাশি সারা দেশে শুরু হয়ে গেছে উৎসব। আগামীকাল পদ্মা সেতু খুলে দেওয়া হবে চলাচলের জন্য।প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর সেতুর নির্মাণ কাজে ৩৭ এবং ৩৮ নম্বর পিলারে প্রথম স্প্যান বসানোর মাধ্যমে পদ্মা সেতুর অংশ দৃশ্যমান হয়। পরে একের পর এক ৪২টি পিলারের ওপর বসানো হয় ৪১টি স্প্যান। ২০২০ সালের ১০ ডিসেম্বর শেষ ৪১তম স্প্যান স্থাপনের মাধ্যমে বহুমুখী ৬.১৫ কিলোমিটার পদ্মা সেতুর সম্পূর্ণ কাঠামো দৃশ্যমান হয়ে ওঠে।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ