১২শ’ টাকার অগ্নিনির্বাপক যন্ত্রে রক্ষা পায় লাখ লাখ টাকা: আরেফীন

নারায়ণগঞ্জ জেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ সহকারী পরিচালক মো. আব্দুল্লাহ আল আরেফীন বলেন, একজন উদ্যোক্তা এক লক্ষ টাকা নিয়ে কাজ শুরু করেছে এখন সেখানে যদি হঠাৎ আগুন লাগে তাহলে কিস্তু এক লক্ষ টাকা’র অবশিষ্ট ছাই । যদি আমরা সেখানে একটা অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র রাখি তাহলে কিন্তু আমাদের এক লক্ষ টাকা সেভ হবে । একটি অগ্নিনির্বাপক যন্ত্রের দাম মাত্র ১২শ’ টাকা। এভাবেই কিন্তু একজন ছোট উদ্যোক্তা থেকে বড় উদ্যোক্ত হবো এবং আমাদের অর্থনৈতিক অবস্থাও উন্নতি হবে। যে কোনো কাজে অগ্নিকাণ্ডের বিষয়টা অনেক ঝুঁকিপূর্ণ আমরা যদি প্রতিরোধ ব্যাবস্থাটা রাখি তাহলে আমরা আমদের সম্পদকে রক্ষা করতে পারি। সুতরাং ১২’ টাকায় রক্ষা পেলো এক লক্ষ টাকা।

সোমবার (২৭ জুন) দুপুরে দুঃস্থ স্বাস্থ্য কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে (চামড়াজাত পণ্যের টেকসই উৎপাদনের উপরে) সাসটেইনেবল এন্টারপ্রাইজ প্রজেক্ট (এসইপি) এর পরিসেবা প্রদানকারীদের সাথে সংযোগ কর্মশালা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে তিনি এ-সব কথা বললে। এসময় পরিসেবা প্রদানকারীদের মাঝে দুঃস্থ স্বাস্থ্য কেন্দ্র কর্তৃক বর্জ্য নিষ্কাশনের জন্য ২টি ভ্যান গাড়ি ও বর্জ্য সংরক্ষণের ৮০টি বিন বিতরণ করা হয়।

কর্মশালায় দুঃস্থ স্বাস্থ্য কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ অঞ্চল-১ এর ব্যবস্থাপক মো. আমিনুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সাসটেইনেবল এন্টারপ্রাইজ প্রজেক্ট (এসইপি)’র প্রকল্পের ব্যবস্খাপক ধনেশ চন্দ্র শীল প্রদানের সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিদর্শক মো. হাবিবুর রহমান, জেলা সাধারণ বীমা কর্পোরেশনের এজিএম মো. নাজিম উদ্দীন, কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আল মামুন মিন্টু ভূইয়া, ফতুল্লা থানা শাখা ডিএসকের ব্যবস্থাপক মো. রাইজুল ইসলাম, সাসটেইনেবল এন্টারপ্রাইজ প্রজেক্ট (এসইপি) এর প্রকল্পের মো. আসিফুল ইসলাম, মো. সরোয়ার হোসেন, মো. সজীব হোসেন সহ উক্ত প্রকল্পের ৩০ জন উদ্যোক্তা।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ