ঢাকাশনিবার , ২৩ জুলাই ২০২২
  1. আন্তর্জাতিক
  2. এক্সক্লুসিভ
  3. খেলা
  4. জাতীয়
  5. তথ্যপ্রযুক্তি
  6. নগর-মহানগর
  7. নাসিক-২০২১
  8. বিনোদন
  9. রাজনীতি
  10. লাইফ-স্টাইল
  11. লিড
  12. লিড-২
  13. লোকালয়
  14. শিক্ষা
  15. শিক্ষাঙ্গন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সোনারগাঁয়ে বিয়ের দাবিতে নারীকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ২

আবু বকর সিদ্দিক
জুলাই ২৩, ২০২২ ৫:৩২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে বিয়ের দাবিতে অবস্থান নিয়ে অনশন করা রোকসানা বেগমেকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলার প্রধান দুই আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১। শুক্রবার (২২ জুলাই) রাত ৯ টায় মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া থানাধীন ভবেরচর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওই হত্যা মামলায় জড়িত প্রধান দুই আসামীকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। শনিবার (২৩ জুলাই) সংস্থাটির অধিনায়ক লে. কর্ণেল তানভীর মাহমুদ পাশা সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীনগর কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে করে এই তথ্য নিশ্চিত করেন। গ্রেপ্তারকৃত আসামীরা হলেন- মো. মনির হোসেন (৪৫) ও মো. আমির হোসেন (৪০), সম্পর্কে তারা একে অপরের ভাই। তারা নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার বাইশটেকী গ্রামের মৃত রাইজ উদ্দিনের ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক তানভীর মাহমুদ পাশা বলেন, হত্যার শিকার রোকসানা বেগম এর স্বামীর সাথে তার বিগত ৭/৮ বছর পূর্বে নিয়ম মোতাবেক বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। বিবাহ বিচ্ছেদের পর তিনি একমাত্র ছেলে শুভকে নিয়ে তার ছোট ভাই মো. এনামুল হক (২৫) এর বাড়ীতে বসবাস করতেন। নিহত রোকসানা উপজেলার বাইশটেকী গ্রামের দেওয়ান বাড়িতে জামদানী শাড়ী তৈরির কাজ করতেন। ফলে ওই বাড়ীর মৃত রাইজ উদ্দিনের ছেলে মনির হোসেন (৪৫) এর সঙ্গে নিহত রোকসানা বেগম (৩২) এর দীর্ঘদিনের বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক গড়ে উঠে। একপর্যায়ে তিনি বিয়ের ব্যাপারে মনির হোসেনকে চাপ দিলে আসামী মনির তার মেয়েকে বিয়ে দেয়ারপর ভিকটিমকে বিয়ে করবে বলে আশ্বাস দেন।

এরপর গত ১৫ জুলাই আসামী মনিরের মেয়ের বিয়ে হলে গত ১৮ জুলাই বিয়ের দাবিতে মনিরের বাড়িতে অবস্থান নেয়। এসময় মনিরের বাড়ির লোকজন তাকে একাধিকবার বাড়ির বাইরে টেনে হিচড়ে বের করে দিলেও রোকসানা তার অবস্থানে অনড় থাকায় মনির হোসেন, তার ভাই গোলজার, খোকন ওরফে খোকা, ছেলে রানা, মনিরের স্ত্রীসহ অন্যান্য আসামীরা লোহার পাইপ, লাঠিসোঠা দিয়ে পিটিয়ে মারাক্তকভাবে রক্তাক্ত করে আহত করে। পরে মুমূর্ষ অবস্থায় ভিকটিমকে মনির হোসেন ও তার সহযোগীরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে মনির ও তার সহযোগীরা লাশ রেখেই হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায়।

তিনি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃত আসামীরা হত্যাকান্ডের দ্বায় স্বীকার করেছেন। হত্যা মামলার অধিকতর তদন্তের জন্য গ্রেফতারকৃত আসামীদ্বয়কে তদন্তকারী কর্মকর্তার নিকট হস্তান্তর কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। র‌্যাব-১১ এই হত্যাকাণ্ডে সাথে জড়িত অন্যান্য আসামীদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ১৮ই জুলাই নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ উপজেলার বাইশটেকী দেওয়ান বাড়ীতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেয়া এক সন্তানের জননী রোকসানা বেগম (৩২) কে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটে। উক্ত ঘটনায় ভিকটিমের ছোট ভাই মোঃ এনামুল হক (২৫) বাদী হয়ে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন, যার মামলা নং-৩৮।

আরও পড়ুন

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।