২ কন্টেইনার মদ আমদানির মামলায় রিমান্ডে ৩ আসামি

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে দুটি কনটেইনার থেকে ৪৭ কোটি টাকা মূল্যের বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদ উদ্ধারের ঘটনায় ১১ জনকে আসামি করে মামলা হয়েছে। এদের মধ্যে ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। তারা হলেন- মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক উপকমিটির সদস্য ও শ্রীনগর থানার ষোলঘরের ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুল ইসলামের ছেলে আব্দুল আহাদ (২২) ও তার দুই সহযোগী ওই জেলার লৌহজংয়ের নাগেরহাটের মৃত শেখ জয়নুল আবেদীনের ছেলে সাইফুল ইসলাম (৩৪) ও শ্রীনগরের ষোল ঘর ভুইচিত্র এলাকায় মো. আক্কাস মোল্লার ছেলে মো. নাজমুল মোল্লা (২৩)।এই তিন জন ছাড়া বাকি আসামিরা হলেন- মো. আজিজুল ইসলাম (৫৭), মিজানুর রহমান আশিক (২৪), জাফর আহমেদ (৩৫), শামীম (৩২), রায়হান (৩৫), দুবাই প্রবাসী (অজ্ঞাত), দিপু (২৮) এবং বাদশা (৩২)।

এদিকে সোমবার (২৫ জুলাই) বিকেলে গ্রেপ্তারকৃত ৩ আসামীর বিরুদ্ধে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠালে আদালত সাইফুল ইসলাম ও মো. নাজমুল মোল্লার ৩ দিনের এবং আব্দুল আহাদের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিজ্ঞ বিচারক সামসাদ বেগম শুনানী শেষে বিকালে এ আদেশ দেন। পুলিশ তাদেরকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যায়।

এরআগে রবিবার (২৪ জুলাই) রাতে র‌্যাব-১১ এর উপপরিচালক মো. শাহাদাত হোসেন বাদী হয়ে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইন ও পেনাল কোডে ৪২৫ এর ৪ ধারায় সোনারগাঁও থানায় এই মামলাটি দায়ের করেন। নারায়ণগঞ্জ আদালত পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। এর আগে, শুক্রবার রাতে দুটি কনটেইনার চট্টগ্রাম থেকে বিদেশি মদের চালান ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার তথ্য আসে র‌্যাব-১১ এর কাছে। এই তথ্যের ভিত্তিতে চেকপোস্ট বসিয়ে অভিযান চালায় র‌্যাব। ভোরে দুটি কনটেইনার ভর্তি মদ উদ্ধার করা হয়। এ সময় সাইফুল ইসলাম ও মো. নাজমুল মোল্লাকে আটক করে র‌্যাব। পরে কাস্টম কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে কনটেইনার দুটি খোলা হয়। তাতে ৩৭ হাজার বোতল বিদেশি মদ জব্দ করা হয়, যার আনুমানিক মূল্য ৪৭ কোটি টাকা।

এ ঘটনায় রবিবার (২৪ জুলাই) বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, গ্রেপ্তারকৃত নাজমুল ও সাইফুল জিজ্ঞাসাবাদে জানান কনটেইনার দুটিতে অবৈধভাবে আনা সিগারেট রয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে তারা ভেতরে অবৈধ বিদেশি মদ থাকার কথাও স্বীকার করেন। দুই কনটেইনার থেকে উদ্ধার হওয়া অবৈধ বিদেশি মদের বোতলগুলো মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর এলাকায় আজিজুল ইসলামের একটি ওয়্যার হাউজে নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। র‌্যাবের দলটি তাৎক্ষণিকভাবে ওই ওয়্যার হাউজে অভিযান চালালে সেখানে কাউকে না পেয়ে আজিজুল ইসলামের ওয়ারীর বাসায় অভিযান চালানো হয়। ওই বাসায় অভিযান চালিয়ে ৯৮ লাখ নগদ টাকাসহ বিপুল পরিমাণ বিদেশি মুদ্রা উদ্ধার করা হয়।

এরপর রবিবার (২৪ জুলাই) সকালে বিমানবন্দর এলাকা থেকে আজিজুল ইসলামের মেজো ছেলে আব্দুল আহাদকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।র‌্যাব কর্মকর্তারা জানান, শুক্রবার রাতে চট্টগ্রামের কাস্টম হাউজ থেকে অবৈধ মদের চালানটি বের হওয়ার পরই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা টের পেয়ে বাবা আজিজুল ইসলাম ও বড় ছেলে মিজানুর রহমান আশিক শনিবার সকালে দুবাই পালিয়েছেন। মেজো ছেলে আহাদও পালিয়ে দুবাই যাওয়ার জন্য বিমানবন্দর গিয়েছিলেন। কিন্তু তার আগেই র‌্যাব কর্মকর্তারা তাকে গ্রেপ্তার করেন।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ