ঢাকামঙ্গলবার , ১৬ আগস্ট ২০২২
  1. আন্তর্জাতিক
  2. এক্সক্লুসিভ
  3. খেলা
  4. জাতীয়
  5. তথ্যপ্রযুক্তি
  6. নগর-মহানগর
  7. নাসিক-২০২১
  8. বিনোদন
  9. রাজনীতি
  10. লাইফ-স্টাইল
  11. লিড
  12. লিড-২
  13. লোকালয়
  14. শিক্ষা
  15. শিক্ষাঙ্গন

ফতুল্লায় আখির হুমকিতে আতংকে বাদল

আবু বকর সিদ্দিক
আগস্ট ১৬, ২০২২ ৫:০৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

অভিযোগের অন্ত নেই লেডি সন্ত্রাসী খ্যাত পরাজিত মেম্বার প্রার্থী আখির বিরুদ্ধে। এরই ধারাবাহিকতায় এবার ফতুল্লার সস্তাপুরে লেডি সন্ত্রাসী আখি ও তার ভাইয়ের ছিনতাই করা গাড়ি রাখতে অস্বীকৃতি জানানোয় এক রিকশা গ্যারেজ মালিক কে হয়রানী করার অভিযোগ উঠেছে। তার কথার অবাধ্য হওয়ায় ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানার টাকা না দিলে গ্যারেজ মালিক বাদলকে ক্ষতি সাধন করার হুমকি দিয়েছে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) দুপুরে গ্যারেজ মালিক বাদল জেলা পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। এছাড়াও এক স্কুল ছাত্রকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীর হুমকি দিয়ে দশ হাজার দুইশ টাকা বিকাশে আদায় করেছে ওই লেডি সন্ত্রাসী আঁখি। টাকা নেয়ার আগে ওই স্কুল ছাত্রের মা বাদী হয়ে আখির বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি সাধারন ডায়েরী দায়ের করেন।

গ্যারেজ মালিক বাদলের অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, সে সস্তাপুর গাবতলা এলাকার শফি মিয়ার ছেলে। স্থানীয় একজনের কাছ থেকে মাটি ভাড়া নিয়ে রিকশার গ্যারেজ দিয়ে রিকশা ভাড়া রাখেন। ৬/৭ মাস পূর্বে একই এলাকার ব্যাটারী চালিত অটোরিকশা ছিনতাইকারী দলের হোতা শাহিন ও তার বোন আখি এবং আখির স্বামী নজরুল গিয়ে বাদলকে তার গ্যারেজের সামনে ছিনতাইকরা অটো রিকশা রাখার প্রস্তাব দেয়। এতে সে অস্বীকৃতি জানালে তাদে দেখে নেয়ার হুমকি দেয়। সেই ঘটনার আগে শাহীন মুন্সিগঞ্জে চালককে হত্যা করে অটোরিকশা ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেপ্তার হয়। এরপর জামিনে এসেই আবারো অটোরিকশা ছিনতাইয়ে তৎপর হয়ে উঠে। তার ছোট বোন আখি ও তার স্বামী নজরুলকে নিয়ে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সিগঞ্জ এলাকায় পৃথক চক্র গড়ে তুলে। সম্প্রতি রাজধানীর যাত্রবাড়ি থেকে ৬টি অটোরিকশা ছিনতাই করে সস্তাপুর নিয়ে আসে তারা। অভিযোগ পেয়ে যাত্রাবাড়ি থানা পুলিশ এসে গ্যারেজ মালিক কে তাদের ঠিকানা জিজ্ঞেস করলে সে দেখিয়ে দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে দলবল নিয়ে বাদলের বাড়িতে গিয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে বাড়ি ঘর ভাংচুর করে এলাকা থেকে আমাকে স্বপরিবারে উচ্ছেদ করার হুমকি দেয়।

অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয়, গত ৫ আগষ্ট রাতে বাদলের গ্যারেজের ২শ গজ দূরে আখির ছেলে আখিক (২২) ও নয়ন (১৯) এর সঙ্গে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে একই এলাকার নিতঞ্জ, আসিবদের বিরোধ দেখা দেয় এবং রাম দাসহ দেশিয় অস্ত্র হাতে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। এঘটনায় আখি জেলা পুলিশ সুপার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগে তার ছেলেদের প্রতিপক্ষের সঙ্গে বাদলের নামও সংযোগ করেন। তাদের ওই অভিযোগে বাদলকে মাদক ব্যবসায়ী সন্ত্রাসীসহ খারাপ প্রকৃতির লোক বলে আখ্যায়ীত করেন। আখির অভিযোগ তদন্তের জন্য ফতুল্লা মডেল থানার এসআই নজরুল ইসলাম দায়ীত্ব পেয়ে ১৩আগষ্ট উভয় পক্ষকে থানায় ডাকেন। দুই পক্ষকে নিয়ে বসারপর আখি থানার বিচার মানেনা বল এসআই নজরুলকে বলেন এলাকায় বিচার হবে। দুইদিন পর বিচারের বিষয় জানিয়ে দিবেন বলে চলে আসেন। যাওয়ার সময় বাদলকে থানার গেইটে হুমকি দিয়ে বলেন “কত বড় থানা চিনোইয়া হইছ দেখামুনে”।

এরপরের দিন ১৫ আগষ্ট রাতে ১৫/২০জন সন্ত্রাসী নিয়ে বাসায় গিয়ে বাদলকে হুমকি দিয়ে আখি বলেন তুই আমাদের অবাধ্য তাই তর জরিমানা গুনতে হবে। মাত্র ২০ হাজার টাকা দিয়ে দিবি। আর নয়তো তর স্থান হবে জাহান্নামে। আখির এমন হুমকিতে ভয়ে বাদল ও তার পরিবারের লোকজন আতংকে দিন কাটাচ্ছে।এবিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার এসআই নজরুল ইসলাম জানান, উভয় পক্ষকে নিয়ে বসছিলাম। অভিযোগকারী আখি এলাকায় বিচার মিমাংসা করবেন বলে সময় চেয়ে চলে গেছেন।

আরও পড়ুন

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।