ঢাকাবুধবার , ২৪ আগস্ট ২০২২
  1. আন্তর্জাতিক
  2. এক্সক্লুসিভ
  3. খেলা
  4. জাতীয়
  5. তথ্যপ্রযুক্তি
  6. নগর-মহানগর
  7. নাসিক-২০২১
  8. বিনোদন
  9. রাজনীতি
  10. লাইফ-স্টাইল
  11. লিড
  12. লিড-২
  13. লোকালয়
  14. শিক্ষা
  15. শিক্ষাঙ্গন

কাউন্সিলর আনোয়ারের কার্যালয়ে হামলা

আবু বকর সিদ্দিক
আগস্ট ২৪, ২০২২ ৪:৩২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নাসিক ১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার ইসলামের কার্যালয়ে হামলা চালিয়েছে মাদক সন্ত্রাসী টাইগার ফারুক গ্যাং। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় নাসিক ১ নম্বর ওয়ার্ডের মিজমিজি তেরা মার্কেট এলাকাস্থ কাউন্সিলরের নিজ বাড়িতে অবস্থিত কার্যালয়ে মাদক সিন্ডিকেটর অন্যতম হোতা টাইগার ফারুকের নেতৃত্বে দেড় থেকে দুইশত সন্ত্রাসী বাহিনী দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এসময় এ সন্ত্রাসী বাহিনী কাউন্সিলরের বাড়িতে তান্ডব চালায় এবং কাউন্সিলরের লোকজনকে মারধর করে।

এতে এলাকায় আতংকের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক শওকত জামিল ও উপ-পরিদর্শক ওহাব সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি শান্ত করে। হামলায় টাইগার ফারুক সহ তার মাদক সিন্ডিকেটের অন্যতম হোতা আরাফাত রহমান বাবু, মিলনসহ চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী, কিশোর গ্যাং ও ছিনতাই চক্রের চিহ্নিত হোতারা অংশ গ্রহণ করে।

এ বিষয়ে নাসিক ১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার ইসলাম জানায়, সিদ্ধিরগঞ্জ পুলটি একটি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট। এ রাস্তাায় অতিরিক্ত অটো ও ইজিবাইক চলাচল করায় প্রতিনিয়ত যানযট লেগেই থাকে। জনসাধারণের ভোগান্তির কথা চিন্তা করে যানজট নিরসনের জন্য সুজন নামে একটি ছেলেকে লাইনম্যান হিসেবে দায়িত্ব দেই। সন্ধ্যায় আদমজী ইপিজেড ছুটি হওয়ার পর ওই রাস্তায় অনেক যানজট সৃষ্টি হওয়ার কারণে ছেলেটিকে রাস্তার শৃঙ্খলা রক্ষা করতে হিমশিম খেতে হয়। ওই সময় ফরহাদ নামে এক যুবক ওল্টো পথে হোন্ডা নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে লাইনম্যান সুজন বাঁধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে হোন্ডা আরোহী ফরহাদ লাইনম্যান সুজনকে মারধর করে। এসময় খবর পেয়ে আমি লোক পাঠিয়ে ফরহাদকে আমার অফিসে নিয়ে আসি। তাকে আমার অফিসে বসিয়ে নামাজ আদায় করছিলাম হঠাৎ মাদক ব্যবসায়ী টাইগার ফারুকের নেতৃত্বে বাবু, মিলনসহ বিপুল সংখ্যক লোকজন আমার বাড়িতে জোরপূর্বক প্রবেশ করে আমার লোকজনকে মারধর করে ফরহাদকে ছিনিয়ে নিয়ে চলে যায়। এসময় তারা আমার সামনেই আমার বাড়িতে হামলা চালায় এবং বিভিন্ন স্থাপনায় আঘাত করে। তাদের অনেকের হাতেই দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র ছিল। তিনি বলেন, আমি একজন নির্বাচিত জনপ্রতিধি হওয়ার পরেও এই মাদক সন্ত্রাসীরা আমার বাড়িতে হামলা চালিয়েছে। সাধারণ মানুষকে তারা কি করে আপনারাই বলুন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান, পিপিএম-বার জানান, শুনেছি কাউন্সিলরের লোকজন নাকি ফরহাদ নামে এক ছেলেকে ধরে নিয়ে মারধর করেছে। পরে তাকে ছাড়িয়ে আনতে কাউন্সিলরের বাড়িতে হামলা চালিয়েছে। আমরা সিসি টিভির ফুটেজ হাতে পেয়েছি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।