ধর্ষণের পর হত্যা, ৪ জনের ফাঁসি

ফতুল্লার বক্তবলীতে ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলার রায়ে ৪জনকে মৃত্যুদন্ড দিয়েছে আদালত। একই মামলায় এক নারীকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও অপর এক নারীকে খালাস প্রদান করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ অক্টোবর) সকালে নারায়ণগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক নাজমুল হক শ্যামল এ রায় ঘোষনা করেন।

মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্তরা হলো-রবিউল, শুক্কুর, কামরুল হাসান, আলী আকবর। যাবজ্জীবন প্রাপ্ত হলেন- ডলি বেগম এবং খালাস পেয়েছেন নাসরিন বেগম। তাদের মধ্যে রবিউল ও ডলি বেগম জামিনে গিয়ে পলাতক রয়েছে।

বাদীপক্ষের আইনজীবী মোঃ সাইদুল ইসলাম সুমন বলেন, ২০০৫ সালের ২মে ফতুল্লার বক্তবলী  চর রাজাপুর গ্রামের বাড়ি থেকে ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রী তার ফুপুর বাড়ি লক্ষীনগর গ্রামে বেড়াতে যায়। তারপর দিন থেকে ছাত্রী নিখোঁজ। ৪ মে লক্ষীনগর গ্রামের একটি ধইঞ্চা খেত থেকে ছাত্রীর মরা দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এঘটনায় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তের বিরুদ্ধে ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

তিনি আরো বলেন, পুলিশ প্রথমে ডলি বেগমকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তখন ডলি পুলিশকে জানায় ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। একই সঙ্গে হত্যাকারীদের নাম পরিচয় জানায়। এঘটনায় আদালত ন্যায় বিচার করেছেন।

আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) রকিব উদ্দিন আহমেদ জানান, ফুফুর কুলখানি অনুষ্ঠান থেকে ডেকে নিয়ে ওই কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে আসামিরা। পরে এ ঘটনায় মামলা হয়। ১৭ জনের সাক্ষ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ