দোকানে হামলা-ভাঙচুর জয়নাল বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগ

দোকানে হামলা-ভাঙচুর জয়নাল বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগ নিজস্ব প্রতিবেদক, সিদ্ধিরগঞ্ জ সিদ্ধিরগঞ্জে একটি দোকানে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করার অভিযোগে মাদক ব্যবসায়ী চক্র জয়নালসহ তার বাহিনীর ৪ সদস্যর বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্তরা হলেন, গোদনাইল ধনকুন্ডা এলাকার মৃত আবুল কাশেমের ছেলে মাদকের ডিলার মো. জয়নাল, আকলিম হোসেনের ছেলে জামান, আতাউর রহমানের ছেলে বাপ্পি ও টেগরা বাবু। চটপটি বিক্রেতা বাবুল মিয়া গত মঙ্গলবার এ অভিযোগটি দায়ের করেন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কদমতলী নয়াপাড়া এলাকার মৃত জালাল মিয়ার ছেলে বাবুল মিয়া গোদনাইল ভাঙারপুল এলাকায় ডিএনডি সেচ খালের পাশে সরকারি জায়গায় দীর্ঘদিন ধরে ভাসমান চটপটি দোকান দিয়ে ব্যবসা করে আসছেন। তাকে ওই সরকারি জায়গা থেকে উঠিয়ে দিতে অভিযুক্তরা গত মঙ্গলবার রাতে হামলা চালিয়ে বাদীসহ পাশের মিরাজের হালিম বিক্রির দোকান ভাঙচুর ও মারধর করে। তারা বিভিন্ন হুমকি দিয়ে দোকানপাট উঠিয়ে দেয়। অভিযোগকারী বাবুল মিয়া বলেন, জয়নাল ও তার বাহিনী গত ১৮ নভেম্বর রাতে সরকারি জায়গা থেকে আমিসহ সকল দোকান পাট উঠিয়ে নেওয়ার জন্য হুমকি দিয়েছিল। তাদের কথা না শোনলে পরিনাম খারাপ হবে। কিন্তু জীবীকার তাগিদে নিরুপায় বিধায়া আমরা দোকান সরাইনি। কিন্তু সরকারি জায়গায় দখল করতেই তারা ভাসমান দোকান দারদের উপর হামলা মারধর ও ভাঙচুর চালিয়েছে। এঘটনায় আমি ৪ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কদমতলী নয়াপাড়া লেকপাড় এলাকায় অবৈধভাবে সরকারি জায়গা দখল করে বাগানবাড়ী বানিয়ে মাদকের হাট বসিয়েছে জয়নাল বাহিনী। ডিএনডি পানি নিস্কাসন খালসহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধিনস্থ প্রায় ৮ শতাংশ জমি দখল করেছে মাদক ব্যবসায়ীরা। তাদের ব্যবসা চাঙ্গা করাতে দখলকৃত জায়গার চার পাশে বাঁশের নকঁশি করা বেড়া দিয়ে ভিতরে রেষ্টুরেন্ট, বসার আসন ও গাছ লাগিয়ে জঙ্গলে পরিণত করা হয়েছে। প্রতিদিন সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত বাগানবাড়ীতে চলে মাদক বেচা-কেনা ও বসে মাদক সেবনের আসর। এখানে পাহারাদার হিসেবে থাকে জয়নাল বাহিনীর টেগরা বাবু, বাপ্পি, ইয়াছিন, আলামিন, প্রান্ত, তহিদ, জনি ও মামা শাহিনসহ সঙ্গবদ্ধ একটি চক্র। তারা আশপাশ এলাকার সরকারি জয়গা দখল করার মিশন বাস্তবায়ন করার লক্ষেই ভাসমান দোকানদারদের উঠিয়ে দিচ্ছে। এসব দোকান দারদের উপর হামলা ও মারধর করা হচ্ছে। অভিযোগ তদন্তকারী কর্মকর্তা সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক মশিউর রহমান নয়ন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ