সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে বহুতল ভবনের নির্মাণ কাজ অব্যাহত 

সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে বহুতল ভবনের নির্মাণ কাজ অব্যাহত নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ১নং ওয়ার্ডে মক্কিনগর মাদ্রাসা রোড এলাকায় রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)’র নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে একটি বহুতল ভবনের নির্মাণ কাজ কিছুদিন বন্ধ থাকার পর পুনরায় শুরু করেছে ভবন মালিক। এ নিয়ে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে এলাকাবাসীর মধ্যে।তবে রাজউক বলছে, ভবনের নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল এবং এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে। যদি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে নির্মাণ কাজ শুরু করে থাকে তাহলে ভবন মালিকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।জানা যায়,  সিদ্ধিরগঞ্জে ১নং ওয়ার্ডের মক্কিনগর মাদ্রাসা রোড-২ এলাকায় জিৈনক ওসমান গনি রাউজকের নকশা থাকা সত্ত্বেও বিধি বর্হিভুত ও অবৈধভাবে চারপাশে কোন জায়গা না রেখে ঝটুকিপূর্ণভাবে ৮তলা বিশিষ্ট ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করে। প্রতিবেশীরা মৌখিকভাবে ভবন মালিককে বিষয়টি অবহিত করলেও তিনি কোনো কর্ণপাত করেননি। এক পর্যায়ে প্রতিবেশীদের পক্ষে শামসুল আলম নামে একজন গত ২০ সেপ্টেম্বর রাজউক নারায়ণগঞ্জ জোনাল অফিস বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন।অভিযোগের প্রেক্ষিতে সরেজমিনে খোঁজ খবর নিয়ে ২৬ অক্টোবর রাজউক নারায়ণগঞ্জ জোনের অথরাইজড অফিসার ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল মালেক (ইন্সপেক্টর) ভবন মালিক ওসমান গনিকে নোটিশ প্রদান করেন।নোটিশে উল্লেখ করা হয়, ইমারত নির্মাণ আইন ১৯৫২ (সর্বশেষ সংশোধনী ২০০৬) এর ৩ ধারার বিধান মতে উক্ত নির্মাণ কাজের সমর্থনে রাজউকের ইমারত নির্মাণ কমিটির অনুমোদিত নকশা (মঞ্জুরী) থাকা প্রয়োজন। এবং এ আইনের ধারা ১০ অনুযায়ী পরিদর্শনকালে অথারাইজড অফিসার বা ক্ষমতা প্রাপ্ত ব্যক্তিকে প্রদর্শনের জন্য এক ফর্দ নকশা এবং অনুমোদনপত্র সংশ্লিষ্ট সাইটে সংরক্ষন করার বিধান থাকলেও পরিদর্শনকালে তা আপনি দেখাতে ব্যর্থ হয়েছেন। এ অবস্থায় এই পত্র প্রাপ্তীর ৭দিনের মধ্যে রাজউক কর্তৃক অনুমোদিত নকশার এক ফর্দ (যদি থাকে) অত্র দপ্তরে দাখিল করার জন্য অনুরোধ করা হলো। সেই সাথে বিষয়টি নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত নির্মাণ সাইটে সকল প্রকার নির্মাণ পুননির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার জন্য বলা হলো। ব্যর্থতায় ইমারত নির্মাণ আইন ১৯৫২ এর সংশ্লিষ্ট ধারা অনুযায়ী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।নোটিশের একটি অনুলিপি সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে দেয়া হয়েছে। সেখানে লিখা হয়েছে, উল্লেখিত প্লটে সকল প্রকার নির্মাণ কাজ বন্ধ করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হলো।এদিকে নোটিশ পাওয়ার পর দীর্ঘদিন নির্মাণ কাজ বন্ধ থাকে। কিন্তু আকষ্মিকভাবে শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) সকাল থেকে পুনরায় ওসমান গনি তার ভবনের নির্মাণ কাজ শুরু করে।এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে, রাজউক নারায়ণগঞ্জ জোনের অথরাইজড অফিসার ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল মালেক (ইন্সপেক্টর) জানান, আমরা নোটিশ দিয়ে কাজ বন্ধ রাখার জন্য বলেছি। এবং সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশকেও ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বলা হয়েছে। কিন্তু নিষ্পত্তি না হতেই কেন ভবন মালিক কাজ শুরু করেছে বিষয়টি খোঁজ নিচ্ছি। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা চুড়ান্ত নোটিশ দিবো। তাতে কাজ না হলে ভবনের বিদ্যুৎ, গ্যাস ও পানির সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হবে। তাতেও কাজ না হলেও আমরা আইনগত ব্যবস্থা নিবো।এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মশিউর রহমান জানান, রাজউকের চিঠি পাওয়ার পর তাৎক্ষনিক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বর্তমানে কাজ করলে কিভাবে করছে তা জানা নেই। এ বিষয়ে কোনো অভিযোগও পাইনি। রাজউক অবগত করলে আবারও ব্যবস্থা নেয়া হবে।

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ