ঢাকাবুধবার , ২১ ডিসেম্বর ২০২২
  1. আন্তর্জাতিক
  2. এক্সক্লুসিভ
  3. খেলা
  4. জাতীয়
  5. তথ্যপ্রযুক্তি
  6. নগর-মহানগর
  7. নাসিক-২০২১
  8. বিনোদন
  9. রাজনীতি
  10. লাইফ-স্টাইল
  11. লিড
  12. লিড-২
  13. লোকালয়
  14. শিক্ষা
  15. শিক্ষাঙ্গন

নোয়াখাইল্যা সন্ত্রাসী রাজিব বেপরোয়া 

আবু বকর সিদ্দিক
ডিসেম্বর ২১, ২০২২ ৪:৩৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

আজমীর ওসমানের নাম ভাঙ্গিয়ে নোয়াখাইল্যা সন্ত্রাসী রাজিব বেপরোয়া বন্দরে কিশোর গ্যাংয়ের লিডার নোয়াখাইল্যা সন্ত্রাসী রাজিবগং বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। বন্দর আমিন আবাসিক এলাকা, বাবুপাড়া, রেলি, রুপালী, ছালেহ নগর, বাড়ইপাড়াসহ বিভিন্ন স্থানে নোয়াখাইল্যা সন্ত্রাসী রাজিব কিশোরগ্যাংয়ের সদস্যদের নিয়ে অরাজকতা করে বেড়ায়। নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের প্রয়াত এমপি বীরমুক্তিযোদ্ধা নাসিম ওসমানের পুত্র আজমেরী ওসমানের নাম ভাঙ্গিয়ে সন্ত্রাসী রাজিব নতুন চকচকে খুদে আগ্নেয়াস্ত্র প্রদর্শন করে হোন্ডাবাহিনী নিয়ে বন্দরে বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় শোডাউন করে থাকে। এতে করে সাধারন মানুষের মধ্যে চরম আতংক ও ভয়ের সঞ্চার ঘটে। যে কোন সময় ঘটতে পারে অপ্রীতিকর ঘটনা। সমাজের চিন্তাশীল মানুষ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের ভাবিয়ে তুলেছে সন্ত্রাসী রাজিবের কর্মকান্ডে ।জানাগেছে, বন্দরে কিশোর গ্যাংয়ের লিডার রাজিবগং আজমীর ওসমানের লোক দাবী করে বিভিন্ন সময়ে মানুষকে হয়রানী করার অভিযোগ রয়েছে। সন্ত্রাসী রাজিব ছিনতাই, মারামারি, নির্যাতনসহ একাধিক লোমহর্ষক ঘটনার সংবাদ শিরোনাম হয়েছে বিভিন্ন গনমাধ্যমে। এসব ঘটনায় মামলা হলেও জামিনে বেরিয়ে এসে ফের বেপরোয়া হয়ে উঠছে। বিগত নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের পূর্বে ২৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী খোকন ভেন্ডারকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে যায়। পরে জামিনে মুক্ত হয়ে পূণরায় সাধারন মানুষকে হয়রানিসহ ব্যবসায়ীদের অতিষ্ট করে বিভিন্ন স্থানে চাদাবাজী ও ছিনতাই অব্যাহত রেখেছে। সন্ত্রাসী রাজিবের নেতৃত্বে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা বন্দরে বিভিন্ন সময়ে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বন্দর স্কুলঘাট এলাকায় পরিবহন চালকদেরও নির্দয়ভাবে পিটিয়ে থাকে। রাজিবগংয়ের নেতৃত্বে কিশোর সন্ত্রাসীদের তৎপরতা বন্ধে বন্দর থানা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে এলাকাবাসী।এ ব্যাপারে কিশোর সন্ত্রাসী রোধে বন্দর ওসি আবু বকর ছিদ্দিক জানান, কিশোর অপরাধ দমনে অভিযান অব্যাহত না থাকলে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা বেপরোয়া হয়ে উঠতে পারে। আমরা অচিরেই এদের চিহিৃত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নিব। তবে কিশোররা যাতে অপরাধে জড়াতে না পারে সেজন্য অভিভাবকদের কঠোর হতে হবে। পাশাপাশি পুলিশকেও সহযোগিতা করতে হবে। 

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।