২০বছর পর খালেদা জিয়ার বক্তব্যের পুনরাবৃত্তি

চাষাড়া বোমা হামলা নিয়ে আইভীর নোংরামী

নিজস্ব প্রতিবেদক:


নারায়ণগঞ্জবাসীর হৃদয়ে এবং নারায়ণগঞ্জের ইতিহাসে বর্বোরচিত ও নৃশংস বোমা হামলা নিয়ে এবার বেফাঁস মন্তব্য করেছেন মেয়র সেলিানা হায়াত আইভী। ২০বছর আগে চাষাড়া বোমা হামলার পর ঠিক একই রকম বক্তব্য দিয়েছিলেন খালেদা জিয়া। নানা সময়ে বর্তমান সরকার ও প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে মেয়র আইভীর ঔদ্ধত্বপূর্ণ বক্তব্যের পর এবার নারায়ণগঞ্জবাসীর হৃদয়ের বেদনাময় এই ঘটনা নিয়ে আইভীর বক্তব্যে ফুসে উঠেছে সাধারন মানুষ ও সুশীল সমাজ।

এমনিতেই গত শনিবার শীতলক্ষ্যা এলাকায় মুক্তিযোদ্ধা সড়ক উদ্বোধনে চিহ্নিত জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীদের স্বরব উপস্থিতিতে ক্ষুব্ধ স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও মুক্তিযোদ্ধারা। তারমধ্যে ঐ অনুষ্ঠানে মেয়র আইভী ঐ এলাকার কৃতি সন্তান ১৬ই জুনের বোমা হামলায় নিহত সাইদুল হাসান বাপ্পীকে স্মরণ করতে গিয়ে বলেছেন, “ নির্মম ভাবে মারা না গেলে বাপ্পী আজ অনেক বড় নেতা হোত। কিছু মানুষের চক্ষুশূল হওয়ার কারণে বাপ্পী আজ আমাদের মাঝে নেই”। মেয়র আইভীর এমন বক্তব্যে উপস্থিত বিএনপি ও জামায়াতের নেতাকর্মীরা হাসি মুখে তালিও দিয়েছেন। কিন্তু মেয়রের এমন বেফাঁস মন্তব্য মানতে পারছেন না স্থানীয় এলাকাবাসী।

তারা বলছেন, ২০০১ সালের ১৬ জুন বোমা হামলার পর খালেদা জিয়া বলেছিলো, তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সহ বঙ্গবন্ধু পরিবারের নিরাপত্তা আইন পাস করাতে শামীম ওসমান এই বোমা হামলা করেছে নিজেদের উপর। ঠিক ২০ বছর পর মেয়র আইভী বললেন, ‘শহীদ বাপ্পী ভাই নাকি অনেকের চক্ষুশূল হয়েছিলো, তাই মারা গেছে!’ তাহলে খালেদা জিয়ার প্রেতাত্মা কি এখন আইভীর উপর ভর করলো? খালেদা ও বিএনপি-জামায়াতের কথার সাথে আইভীর কথার মিল পাওয়া যাচ্ছে। কারণ, ১৬ জুনের বোমা হামলা করেছিল হরকত উল জেহাদ। তাহলে বাপ্পী ভাই কার চক্ষুশূল ছিল? হরকত উল জিহাদের? নাকি এই বোমা হামলা নিয়ে খালেদার কথার পুনরাবৃত্তি করলেন আইভী? কেউ কেউ বলছেন, মেয়র আইভী মূলত নোংরামী করলেন এই বেদনাবিধুর ঘটনাটি নিয়ে।


এদিকে বিষয়টি নিয়ে সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা বলছেন, ২০০১ সালের ১৬ই জুন চাষাড়া আওয়ামীলীগ অফিসে বোমা হামলা চালিয়েছিল ভয়ঙ্কর সংগঠন হরকত উল জেহাদ(হুজি) । হুজির নেতা মুফতি হান্নান, ভারতে গ্রেফতার জঙ্গী সহোদর মুত্তাকিম মোরসালিন এই বোমা হামলার জড়িত থাকার কথাও স্বীকার করেছে অনেক আগেই। এই মামলায় চার্জশীটও দিয়েছে তদন্তকারী সংস্থা। সেখানে বোমা হামলায় নিহত সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও শীতলক্ষ্যা এলাকার জনপ্রিয় নেতা সাইদুল হাসান বাপ্পীর মৃত্যূ নিয়ে মেয়র আইভীর এমন বক্তব্য নিয়ে চরম ক্ষুব্ধ শীতলক্ষ্যা বাসী। পাশাপাশি সাধারন মানুষের মনে প্রশ্ন জেগেছে, মেয়র আইভীর এমন বক্তব্য সন্দেহ সৃষ্টি করেছে।

বোমা হামলাকারীদের তথা হরকত উল জিহাদের চক্ষুশূল কিকরে হোল শহীদ বাপ্পী? তাহলে বোমা হামলার বিষয়ে মেয়র আইভীকেই নতুন করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হোক। তিনি মূলত কাকে উদ্দেশ্য করে কথাটা বললেন। তিনি কি হুজি বাহিনীকে রক্ষা করার মিশনে নামলেন ?

আরোও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ