হাত বাড়ালেই মিলছে মাদক

রূপগঞ্জে মাদকের জমজমাট ব্যবসা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রূপগঞ্জ:

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার সীমানাবর্তী হোড়গাঁও এলাকায় অবাধে মাদক বিক্রি হলেও রহস্যজনক কারণে প্রশাসন নিরব ভূমিকা পালন করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিপুল পরিমাণ মাদকসহ ওই এলাকার মাদক কারবারি সুজন মিয়া ঢাকার কেরানীগঞ্জে আটকের পর এক মাস হাজতবাস করে জামিনে বেরিয়ে আসে। এখন সে মাদক বিক্রিতে আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠেছে।

এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার হোড়গাঁও এলাকাটি রূপগঞ্জের সীমানাবর্তী হওয়ায় পুলিশ আসার সংবাদ পেলে পাশের উপজেলা আড়াইহাজারে চলে যায়। ফলে পুলিশ তাকে ধরতে পারছে না। দীর্ঘদিন ধরে হোড়গাঁও গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে সুজন মিয়া এভাবেই মাদক কারবার চালিয়ে আসছে। এ কাজে আর্থিক সহযোগিতা করে তারই খালা একই এলাকার জাইদুল হকের স্ত্রী পুতুল আক্তার।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারী মাসে ২০ লাখ টাকার (আনুমানিক মূল্য) মাদকসহ ঢাকার কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশের হাতে আটক হয়। পরে এক মাস হাজতবাসের পর জামিনে বেরিয়ে পুনরায় মাদক ব্যবসা শুরু করেছে পুরোদমে। অবিলম্বে মাদক কারবারি সুজন ও তার খালা পুতুলের গ্রেফতার দাবি জানিয়েছেন এলাকাবসী। রুপগঞ্জ থানার ওসি আবুল ফয়সাল মো. সাহেদ জানান, বিষয়টি জানা ছিল না। তবে মাদকের সাথে সম্পৃক্ত কাউকে ছাড় দেয়া হবে নবলে হুঁসিয়ারী দেন তিনি।

আরোও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ