ফতুল্লায় নৌকার মাঝী স্বপন


নিজস্ব প্রতিবেদক:

দীর্ঘ ৩০ বছর পর ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালিকায় কেন্দ্রে পাঠানো হচ্ছে শুধু খন্দকার লুৎফর রহমান স্বপনের নাম। যিনি ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান। তৃণমূল নেতাকর্মীর সাথে জরুরী সভার এক দিনপর বুধবার (১৭ নভেম্বর) থানা ও জেলা আওয়ামী লীগ থেকে এই প্রার্থীর নাম একক ভাবেই কেন্দ্রে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। খন্দকার লুৎফর রহমান স্বপন ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন।

সর্বশেষ ১৯৯২ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন হয়েছিল। ১৯৯৬ সালে ফতুল্লা ইউনিয়নের নির্বাচন ঠেকাতে সীমানা সংক্রান্ত জটিলতা দেখিয়ে একটি মামলা করায় নির্বাচনটি থমকে যায়। ওই নির্বাচনে জয়ী চেয়ারম্যান নুর হোসেন বহু আগেই মারা গেছেন। মারা গেছেন ৫ জন সদস্যও (মেম্বার)। সংরক্ষিত আসনের একজন নারী সদস্য স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করে চলে গেছেন অনেক আগেই। লুৎফর রহমান স্বপন নামে (মেম্বার) সদস্য দীর্ঘদিন ধরেই ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্বে রয়েছেন।

অবশেষে ইউনিয়নটিতে ২৩ ডিসেম্বর ভোটের দিন ঘোষণার পর থেকেই ইউনিয়নটিতে উৎসবের আমেজ বৈছে। চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশা নিয়ে আওয়ামী লীগ থেকে ৭ জন মনোনয়ন চেয়েছেন। এ তালিকায় ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান স্বপন ছাড়াও ফতুল্লা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মিছির আলী, ফতুল্লা থানা যুবলীগের সভাপতি মীর সোহেল, থানা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফাইজুল ইসলাম, ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক ফরিদ আহম্মেদ লিটন,

ফতুল্লা থানা ছাত্রলীগের সভাপতি আবু মোহাম্মদ শরীফুল হক, থানা আওয়ামীলীগের সদস্য মজিবুর রহমান ছিলেন। রাতে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহীদ বাদল সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ‘ইউনিয়নটিতে আওয়ামী লীগের একাধিক প্রার্থী ছিল। নেতা ও তৃণমূলের কর্মীদের সম্মতি ক্রমে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, নৌকার সাথে একক প্রার্থী হিসেবে খন্দকার লুৎফর রহমান স্বপনের নাম পাঠানো হচ্ছে।’

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ