চাদাঁর দাবীতে ফতুল্লায় ২ভাইকে কুপিয়ে জখম

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফতুল্লা:

নারায়ণগঞ্জে ফতুল্লায় চাদাঁর দাবীতে সন্ত্রাসীরা সহোদর দুই ভাইকে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহতরা হলো ফতুল্লা থানার পূর্ব লালপুর এলাকার মোঃ শাহজাহান মিয়ার পুত্র মুদি ব্যবসায়ী শাকিল আহম্মেদ (৩০) ও তার ভাই শামীম আহম্মেদ(২৮)।
আহতদের মধ্যে শামিম আহম্মেদের অবস্থা আশংকাজনক। তাকে প্রথমে শহরের জেনারেল হাসপাতাল(ভিক্টোরিয়া) নিয়ে যাওয়া হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়।

ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার (২০ নভেম্বর) রাত সাড়ে দশটায় ফতুল্লা থানার প্র্বূ লালপুর পাকিস্তান খাদ এলাকায়। এ ঘটনায় মুদি ব্যবসায়ী শাকিল বাদী হয়ে নয় জনের নাম উল্লেখ্য সহ অজ্ঞাতনামা আরো কয়েকজনের নাম উল্লেখ্য করে ফতুল্লা মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। এ বিষয়ে অভিযোগকারী মুদি ব্যবসায়ী শাকিল জানায় হামলাকারীরা এলাকার চিন্থিত চাঁদাবাজ ও মাদক ব্যবাসায়ী। বেশ কয়েকদিন ধরেই হামলাকারীরা তার দোকানে এসে টাকা না দিয়ে বিভিন্ন জিনিসপত্র ক্রয় করে নিয়ে যায়।

শনিবারও তারা টাকা না দিয়ে ক্রয় করতে চাইলে সে পূর্বের বকেয়া টাকা দাবী করলে অভিযুক্তার উল্টো তার নিকট ত্রিশ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করে বলে যে রাতে এসে টাকা নিয়ে যাবে। অভিযুক্তরা রাত সাড়ে ১০ টার দিকে তার নিকট এসে তাদের দাবীকৃত চাঁদা দাবী করে। দাবীকৃত চাঁদা প্রদানে অস্বীকার করলে চিন্থিত চাঁদাবাজ ও মাদক ব্যবসায়ীদের শেল্টারদাতা বলে পরিচিত কাজল ও রাহাতের নির্দেশে চিন্থিত সন্ত্রাসী শাওন, শাওন, জসিম, মুন্নু, সাব্বির, রাব্বিসহ বেশ কয়েক সন্ত্রাসী দেশীয় তৈরী ধারালো রামদা, ছুরি নিয়ে তার উপর হামলা চালায়।

এ সময় তাকে বাঁচাতে তার ছোট ভাই শামিম এগিয়ে এলে তার উপর হামলা চালায়। এক পর্যায়ে হামলাকারীরা তার ছোট ভাইয়ের বুকে ও পেটে একাধিকবার ছুরি দিয়ে আঘাত করে।তাদের ডাক-চিৎকারে স্থানীয়বাসী এগিয়ে এলে হামলাকারীরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রকিবুজ্জামান জানান, এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেস্টা করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ