মায়ের পরকীয়ার বলি হল সন্তান

- Advertisement -

মায়ের পরকীয়ার বলি হতে হয়েছে চতুর্থ শ্রেণীর শিক্ষার্থী তাওসিফের (১১) এমন দাবি পিতা জামাল উদ্দিনের। ওই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে তিনি তার স্ত্রী শীলা আক্তারকে (২৯) পুলিশে সোপর্দ করেছেন বলে জানিয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবির হোসেন। মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাতে রূপগঞ্জ উপজেলার শিমুলিয়া এলাকায় ওই ঘটনা ঘটে। পরে বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) সন্ধায় নিহতের পিতা জামাল উদ্দিন রূপগঞ্জ থানায় বাদী হয়ে শীলা বেগম ও তার পরকিয়া প্রেমিক জুলহাসকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এর পর থেকেই শীলার পরকীয়া প্রেমিক জুলহাস পলাতক রয়েছে।পুলিশের সূত্রে জানা গেছে, শীলা তাওসিফের মরদেহ নিয়ে জামাল উদ্দিনের কাছে এলে তিনি তার সন্তানের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষত দেখতে পায়। সন্দেহ হলে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি বলেন, তাওসিফ গলায় ফাঁস নিয়েছে। নিহত তাওসিফ উপজেলার ভোলাবো ইউনিয়নের পাইস্কা এলাকার জামালউদ্দিনের ছেলে। সে স্থানীয় জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র।নিহতের পিতা জামাল উদ্দিন বলেন, প্রায় দেড় বছর আগে তার স্ত্রী শীলা পাইস্কা তার ছোট বোনের জামাই জুলহাসের সাথে পরকীয়ায় আসক্ত হয়ে ছেলে তাওসিফকে সাথে নিয়ে পালিয়ে যায়। এরপর থেকে শিলা আক্তার জুলহাসের সাথে পার্শ্ববর্তী শিমুলিয়া এলাকার রেজাউলের ভাড়া বাড়িতে বসবাস করছিলেন। পরে গত ২০ সেপ্টেম্ব মঙ্গলবার রাত ৯ টার দিকে হঠাৎ তাওসিফের মরদেহ নিয়ে শিলা হাজির হয়। প্রথমে সে জানায় তাওসিফ জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। তাওষিফের শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখিয়ে চাপ দিলে তিনি বলেন, তার ছেলে গলায় ফাঁস দিয়েছে। আমার ধারণা শীলা ও তার পরকীয়া প্রেমিক জুলহাস তাওসিফকে শ^াসরোধ করে হত্যা করেছে। এদিকে নারায়ণগঞ্জ সহকারী পুলিশ সুপার (গ-সার্কেল) আবির হোসেন বলেন, পুলিশ মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল (ভিক্টোরিয়া) হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। এ ঘটনায় নিহতের পিতা জামাল উদ্দিন বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। তিনি বলেন, তাওসিফের মা শিলাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তবে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারন সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে বলেও জানান তিনি।

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ