ঢাকাসোমবার , ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১
  1. আন্তর্জাতিক
  2. এক্সক্লুসিভ
  3. খেলা
  4. জাতীয়
  5. তথ্যপ্রযুক্তি
  6. নগর-মহানগর
  7. নাসিক-২০২১
  8. বিনোদন
  9. রাজনীতি
  10. লাইফ-স্টাইল
  11. লিড
  12. লিড-২
  13. লোকালয়
  14. শিক্ষা
  15. শিক্ষাঙ্গন

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের লড়াইয়ে ১৪টি পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমা

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ স্টাফ
সেপ্টেম্বর ২০, ২০২১ ১:৪৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ রিপোর্ট: চলচ্চিত্র নির্মাণকে উৎসাহ দিতে প্রতিবছর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান করে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়। গত আগস্ট মাসে এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে ২০২০ সালে মুক্তি পাওয়া সিনেমা আহ্বান করে মন্ত্রণালয়। গতকাল বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত ছিল ছবি জমা দেওয়ার সময়সীমা। এই সময়ের মধ্যে জমা পড়ে মোট ২৭টি সিনেমা। এসবের মধ্যে ১৪টি পূর্ণদৈর্ঘ্য, ৭টি স্বল্পদৈর্ঘ্য ও ৬টি প্রামাণ্যচিত্র।

সাম্প্রতিক সময়ে জাতীয় পুরস্কারের জন্য এত কম ছবি আগে জমা পড়েনি। ২০২০ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের জন্য জমা পড়া সিনেমা নিয়ে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের সচিব মো. মমিনুল হক রোববার বিকেলে প্রথম আলোকে বলেন, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে জমা পড়েছে ২৭টি ছবি, যা গতবারের চেয়ে কম। ২০১৯ সালের পুরস্কারের জন্য জমা পড়েছিল ২৯টি পূর্ণদৈর্ঘ্য, ১১টি স্বল্পদৈর্ঘ্য ও ৩টি প্রামাণ্যচিত্র—মোট ৪৩টি সিনেমা।

মো. মমিনুল হক বলেন, ‘গতবারের চেয়ে এবার সিনেমা ও প্রামাণ্যচিত্র কম জমা পড়েছে। কারণ, করোনা মহামারির কারণে ২০২০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ছবির সংখ্যা কম।’ তিনি জানান, দু–এক দিনের মধ্যে সভা আহ্বান করে কবে থেকে সিনেমা দেখা শুরু করবেন, সে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। গন্ডি মুক্তি পায় গত বছর পুরস্কারের জন্য জমা পড়া ১৪ পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমাগুলো হলো বীর, শাহেনশাহ, গোর, একজন মহান নেতা, হলুদ বনি, ঊনপঞ্চাশ বাতাস, গণ্ডি, রূপসা নদীর বাঁকে, আমার মা, চল যাই, জয় নগরের জমিদার, সূবর্ণরেখা, হৃদয় জুড়ে ও বিশ্বসুন্দরী।

স্বল্পদৈর্ঘ্য সিনেমা কোথায় পাব তারে, আতর, সাদা গোলাপ, ফেরা, আড়ং, দ্য স্কায়ার্স ও আমার বাবার নাম এবং প্রামাণ্যচিত্র স্বাধীনতার ডাকটিকিট, রথযাত্রার বাকি ইতিহাস, বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক জীবন ও বাংলাদেশের অভ্যুদয়, বায়োগ্রাফি অব নজরুল, দ্য ফ্রন্ট পিয়ার্সম্যান ফজলুল হক ও নীলমুকুট। করোনা মহামারির কারণে ২০২০ সালে ছবি মুক্তি পেয়েছে কম। মুক্তির জন্য প্রস্তুত থাকলেও অনেক নির্মাতাই এ বছর ছবি মুক্তি দিতে চাননি। এর প্রধান কারণ, বছরের বেশির ভাগ সময় প্রেক্ষাগৃহ ছিল বন্ধ। মহামারির ভেতরে সিনেমার প্রতি দর্শকের আগ্রহও ছিল তুলনামূলক কম। বিনিয়োগ উঠে না আসার শঙ্কায় এই সময়ে প্রযোজক–পরিচালকেরা তাঁদের সিনেমা মুক্তি দিয়ে লগ্নি ঝুঁকিতে ফেলতে চাননি। যদিও এ বছর ওটিটি প্ল্যাটফর্মে বেশ কিছু ছবি মুক্তি পেয়েছে, যেগুলো নিয়ে পরে আলোচনাও হয়েছে।

২০২০ সালে মুক্তি পায় গোর উল্লেখ্য, এবারও ২৮টি বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান করা হবে। পুরস্কারের জন্য মনোনীত বিভাগগুলো হচ্ছে আজীবন সম্মাননা, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ প্রামাণ্য চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পরিচালক, শ্রেষ্ঠ অভিনেতা (প্রধান চরিত্রে), শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী (প্রধান চরিত্রে), শ্রেষ্ঠ অভিনেতা (পার্শ্বচরিত্রে), শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী (পার্শ্বচরিত্রে), শ্রেষ্ঠ অভিনেতা-অভিনেত্রী (খল চরিত্রে), শ্রেষ্ঠ অভিনেতা-অভিনেত্রী (কৌতুক চরিত্রে), শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পী, শিশুশিল্পী শাখায় বিশেষ পুরস্কার, শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক, শ্রেষ্ঠ নৃত্য পরিচালক, শ্রেষ্ঠ গায়ক, শ্রেষ্ঠ গায়িকা, শ্রেষ্ঠ গীতিকার, শ্রেষ্ঠ সুরকার, শ্রেষ্ঠ কাহিনিকার, শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার, শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা, শ্রেষ্ঠ সম্পাদক, শ্রেষ্ঠ শিল্পনির্দেশক, শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক, শ্রেষ্ঠ শব্দগ্রাহক, শ্রেষ্ঠ পোশাক ও সাজসজ্জাশিল্পী এবং শ্রেষ্ঠ রূপসজ্জাকার।

আরোও পড়ুন

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।