প্রচারণাকালে সাংবাদিকদের নৌকার প্রার্থী আইভী

১৫ শতাংশ ট্যাক্স কমানোর অধিকার মেয়র রাখে

একটি সিটি করপোরেশনেরে মেয়র চাইলে ১৫ শতাংশ ট্যাক্স কমিয়ে দিতে পারে। সেই অধিকার আমিও রাখি। যারা আর্থিক ভাবে অস্বচ্ছল, তাঁরা আমার কাছে দরখাস্ত করলেই কমিয়ে দিয়েছি। এটা নারায়ণগঞ্জবাসী জানে।
হোল্ডিং ট্যাক্স কমিয়ে আনতে স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলমের দেওয়া প্রতিশ্রুতির একদিন পরই বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) প্রচারণায় নেমে সাংবাদিকদের সাথে এ কথা বলেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও সাবেক মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী।
তার ভাষ্য, আগামীতে আমিও চেষ্টা করবো আরও কিছু ছাড় কিভাবে দেওয়া যায়।
স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার প্রার্থী হওয়ার পর থেকে বরাবরই অভিযোগ করছিলেন, ঢাকায় ১৪ শতাংশ হারে ট্যাক্স নেন, চট্টগ্রামে ১৭ শতাংশ হারে আর গাজীপুরে ৭ থেকে ১০ শতাংশ। অথচ, আমরা নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মানুষ কেন ২২ শতাংশ হারে ট্যাক্স দিবো। আমি নির্বাচিত হলে সব ধরণের ট্যাক্স কমিয়ে আনবো।
প্রচারণার প্রথম দিন (২৯ ডিসেম্বর) আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, কোন ট্যাক্স বাড়ানো হয়নি, আমি কোন ট্যাক্স বাড়াই নাই। আমি যদি ট্যাক্স বাড়াতাম, তাহলে তো ৫ বছরে মানুষ বলতো। এসব বলে মানুষকে বোকা বানানো যাবে না। যেটা ট্যাক্স, সেটা মানুষ দিচ্ছে এবং আরামসে দিচ্ছে। হঠাৎ উনি (তৈমূর) এসে বিভ্রান্তি তৈরি করার চেষ্টা করছে। এটা কারো জন্যই কাম্য না।
প্রচারণার দ্বিতীয় দিন (৩০ ডিসেম্বর) সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, ‘ট্যাক্স একদম মাফ করে দেওয়ার অধিকার তার (তৈমূর আলম খন্দকার) নাই। এটা সম্ভবও না। পানির ট্যাক্স পুরো মৌকুফ করলে পাম্প গুলো চালানোর বিদ্যুৎ বিল কোথা থেকে এনে দিবেন? এ ধরণের মিথ্যা প্রতিশ্রুতি মানুষকে দেওয়া ঠিক না।
এসময় সেলিনা হায়াৎ আইভী আরও বলেন, আপনি যদি ছাদ বাগান করেন, তাহলে ১৫ শতাংশ হোল্ডিং ট্যাক্স মৌকুফ করার নিয়ম আছে। ছাদ বাগানের জন্য আমরা ১৫ শতাংশ মওকুফ করে দিতে পারি।

আরোও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ