ছাদবাগান করলে হোল্ডিং ট্যাক্স ছাড়

আমি নির্বাচিত হলে, যারা ছাদবাগান করবেন, ছাদ বাগান করে খাদ্যের চাহিদা পূরণ করবেন। তাদের হোল্ডিং ট্যাক্স কমিয়ে সকলকে উৎসাহিত করা হবে। একই সাথে নারায়ণগঞ্জকে গ্রীন এন্ড ক্লীন তথা সবুজ ও পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে গড়ে তুলবো। যেখানেই খালি জায়গা পাবেন, সেখানেই গাছ রোপন করতে হবে।
নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৮নং ওয়ার্ডের শীতলক্ষা এলাকায় প্রচারণাকালে বৃহস্পতিবার  (৩০ ডিসেম্বর) সাংবাদিকদের এ কথা বলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী এডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার।
তিনি বলেন, পৃথিবীর মধ্যে সবচে বেশি বায়ু দূষণ হয়, এমন শহরের তালিকায় নারায়ণগঞ্জ অন্যতম। একই সাথে বর্জ্য অব্যবস্থাপনার কারণে ময়লার নগরীতে পরিনত হয়েছে এই শহর।
তৈমূর আলম বলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন ১০ বছর হয়েছে। তারা প্রশাসনিক ক্ষমতায় আছে ১৮ বছর যাবত। এই ১৮ বছরে পৌরবাসীর নাগরীক সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি হওয়ার কথা ছিল, সে হিসেবে বৃদ্ধি হয়নি। উপরন্তু হোল্ডিং ট্যাক্স বৃদ্ধি পেয়েছে, পানির ট্যাক্স ধরা হয়েছে। জন্মনিবন্ধনের জন্য হয়রানী হতে হচ্ছে। ট্রেড লাইসেন্সের ফি তিন গুন হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। আমি প্রমান ছাড়া কথা বলি না। তারপরেও নারায়ণগঞ্জবাসী স্বাক্ষী, তারাই বলতে পারবে, হোল্ডিং ট্যাক্স বেড়েছে কি না?
স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী আরও বলেন, একটি পরিবর্তনের লক্ষ্যে একজন যোগ্য মানুষের প্রয়োজন, মানুষের চাহিদা ও গণমানুষের আহব্বানেই আমাকে এখানে প্রার্থী হতে হয়েছে। জনতাও তাদের প্রার্থীকে পেয়ে স্বতঃস্ফূর্ত ভাবেই নির্বাচনে আছে। আমি মনে করি, এটা একটি গণবিপ্লব হতে যাচ্ছে। এই বিপ্লবে জনগণের জয় হবে ইনশাআল্লাহ।
গণসংযোগকালে তৈমূর আলম খন্দকারের পাশে উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু আল ইউসুফ খান টিপু, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহব্বায়ক জাহিদ হাসান রোজেলসহ বিপুল সংখ্যক দলীয় নেতা-কর্মী ও এলাকাবাসী। এরআগে সকালে তৈমূর আলম খন্দকার সেখানে পৌছালে গণমানুষের ঢল নামে। সবার সাথে কুশল বিনিময় এবং হাতি মার্কায় ভোট চান তৈমূর।

আরোও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ