ইভিএম’এ কোন শঙ্কা নেই : আইভী

- Advertisement -


আওয়ামীলীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াত আইভী বলেছেন, আমার বিরোধী প্রার্থীরা ইভিএম নিয়ে নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করলেও আমি শঙ্কা প্রকাশ করছি না। কারণ ২০১১ সালের নাসিক নির্বাচনে কয়েকটি ভোটকেন্দ্রে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছিল, তখন সুষ্ঠুভাবেই ভোটগ্রহণ হয়েছিল। আশা করি এইবারের নির্বাচনও সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষভাবে অনুষ্ঠিত হবে।

রবিবার নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের সিদ্ধিরগঞ্জের ৪ নং এবং ৫ নং ওয়ার্ডে গণসংযোগকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এসব কথা জানান। রবিবার দিনভর তিনি নাসিকের ৪ নং ও ৫ নং ওয়ার্ডের ওয়াপদা, উত্তর আজিবপুর, দক্ষিণ আজিবপুর, সিদ্ধিরগঞ্জ কলাবাগান, সিদ্ধিরগঞ্জ রেললাইন, সিদ্ধিরগঞ্জ হাউজিং, সরদারপাড়া, সিদ্ধিরগঞ্জ বাজার, সিদ্ধিরগঞ্জ বিদ্যুৎ কেন্দ্র, নারায়ণগঞ্জ সাইলোসহ পাশপাশের এলাকায় গণসংযোগ করেন।

আইভী কয়েকটি স্পটে গণমাধ্যমের সাথে কথা বলতে গিয়ে জানান, আমি জয় বাংলা স্রোগান দেই বলে অনেকেই আমার নামে মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে। আমাকে কাফির বলে অভিহিত করছে। আমি নাকি মসজিদ ভেঙেছি, মন্দিরের জায়গা দখল করেছি। আজ পর্যন্ত এমন কেউ প্রমাণ করতে পারবে না। আমি নারায়ণগঞ্জে এই পর্যন্ত আরও নতুন ৭ টি মসজিদ করে দিয়েছে। হেফাজতের সেক্রেটারী ফেরদৌস সাহেব আমার নামে নিয়মিত মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে। তিনি বলেন, ভোটারদের সমর্থন আমার সাথে আছে।

ইনশাল্লাহ ১৬ জানুয়ারির নির্বাচনে নৌকা বড় ব্যবধানে জয়লাভ করবে। ধর্মীয় চেতনায় আঘাত হেনে, সিটি করপোরেশন বেশি ট্যাক্স নেয় বার বার এসব কথা বলে আমার বিরুদ্ধে না কথা বলা হচ্ছে। নির্বাচন মানেই চ্যালেঞ্জ। আমি এই চ্যালেঞ্জকে মোকাবেলা করতে প্রস্তুত আছি। আমি আমার সব ওয়ার্ডে ব্যাপক উন্নয়ন করার চেষ্টা করেছি। এখনো কিছু উন্নয়ন করা বাকী আছে। আমার এই ওয়ার্ডে পর্যাপ্ত পরিমাণে খেলার মাঠ, পার্ক নেই। আমি নির্বাচিত হলে চেষ্টা করবো মানুষের এইসব সমস্যাগুলো সমাধান করার।

তিনি আরো বলেন, নাসিক নির্বাচনকে কেন্দ্র করে অনেক কালোটাকার ছড়াছড়ি হচ্ছে, প্রশাসনকে অনুরোধ করবো এইসব বিষয়ে সজাগ থাকার। তিনি বলেন, বিগত সময়গুলোতে আমি মানুষের জন্য কাজ করেছেন। প্রতিটি ওয়ার্ডে মানুষের চাহিদা অনুযায়ী কাজ করেছি। জনগণ আমাকে আবারও মূল্যায়ন করবে। জয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী । আগামীর পরিকল্পনা সম্পর্কে সাবেক এই মেয়র বলেন, ‘যেসব কাজ চলমান ছিল সেগুলো শেষ করবো।

এছাড়া মানুষের চাহিদা মোতাবেক কাজ করার পরিকল্পনা রয়েছে। সবসময়ই মানুষের চাহিদা মোতাবেক কাজ করেছি। সেটি ২৭টি ওয়ার্ডে ঘুরে দেখলেই এর প্রমাণ পাবেন। আগামী খেলার মাঠ, পুকুর, খাল নিয়ে কাজ করবো। বিশেষ করে বিশুদ্ধ ও সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত করবো।’
এসময় তার সাথে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম আমিন, নাসিক ৪ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক আরিফুল হক হাসান, ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম মোহাম্মদ সাদরীল, সিদ্ধিরগঞ্জ পৌরসভার সাবেক প্রশাসক আব্দুল মতিন প্রধান, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রমজান আলীসহ স্থানীয় আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ

You cannot copy content of this page