অপহরণের সময়

বন্দরে ২ ভুয়া ডিবি পাকড়াও

- Advertisement -

বন্দরে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ৬ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে অস্ত্রের মুখে এক ইটভাটা শ্রমিককে অপহরণ করে তুলে নিয়ে যাওয়ার সময় সংঘবদ্ধ চক্রের দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আরো ৪ জন পালিয়ে যায়। রবিবার (৬ মার্চ) দুপুরে বন্দর উপজেলার মদনপুর এলাকার ভাগডুবাড়িয়া একাকায় ফাইভ জিরো ফাইভ নামের একটি ইটভাটায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ তাদের ব্যবহৃত একটি হাইয়েস মাইক্রোবাস, ভূয়া জাতীয় পরিচয়পত্র ও পুলিশের ব্যবহৃত বিভিন্ন সরঞ্জাম জব্দ করে। আটকরা হলেন- রূপগঞ্জের গাউসিয়ার গোলাকান্দাইল ৩নং ওয়ার্ডের মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে আহমেদ আকাশ ও বন্দরের দেওয়ানবাগ কলাবাড়ির কামরুজ্জামান ভূইয়ার ছেলে নাফিস আলী ভূইয়া। এদের মধ্যে আকাশের নামে পূর্বে মাদক ও ভুয়া ডিবি পরিচয়ে অপরাধকাণ্ডে মামলা রয়েছে। আর নাফিস ছিলেন গাড়িচালক।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সহকারী পুলিশ সুপার (‘খ’ সার্কেল) বিল্লাল হোসেন জানান, রোববার দুপুরে বন্দর মদনপুর ভাগডুবাড়িয়া এলাকায় একটি ইটভার শ্রমিক সর্দার আরাফাতকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে সংঘবদ্ধ চক্রটি আটক করে। পরে ছয় লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে শ্রমিক সর্দারকে মারধর করা হয়। চাঁদার টাকা না দিলে গুলি করে হত্যার হুমকি দেয় চক্রটি। পরে ওই শ্রমিককে গাড়িতে করে তুলে নেওয়ার সময় এলাকাবাসি ও ইটভাটার মালিক বাধা দিয়ে বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে তাদের দেয়া তথ্য ডিবি পুলিশের পরিচয় ভুয়া প্রমানিত হয়। তারা কোন ডিবি অফিসে দায়িত্ব পালন করে সদত্তোর দিতে পারেনি।

এসময় পুলিশ তাদের তল্লাশী করে তাদের ব্যবহৃত একটি হাইয়েস গাড়ি, ভূয়া জাতীয় পরিচয়পত্র ও পুলিশের ব্যবহৃত বিভিন্ন সরঞ্জাম জব্দ করে। পরে তাদের বিরুদ্ধে মামালা দিয়ে বন্দর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।প্রাথমিক ভাবে জিজ্ঞাসা করলে তারা স্বীকার করেছে দীর্ঘদিন যাবত এ চক্রটি সংঘবদ্ধ হয়ে মহাসড়কে পুলিশ পরিচয় দিয়ে ডাকাতি চাঁদাবাজি করে আসছিল। এ অভিযানে তাদের ৬ জন সদস্য ছিল। এর মধ্যে ৪ জন পালিয়ে গেছে। দুজনকে আটক করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ

You cannot copy content of this page