সড়ক ও জনপথের রহস্যজনক উচ্ছেদ

বাদল বাহিনীর চাঁদাবাজী : স্ট্রোক করে ব্যবসায়ীর মৃত্যু

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ফুটপাত ব্যবসায়ীর কাছে আবারও চাঁদা ও জামানত দাবি করায় স্ট্রোক করে মৃত্যু বরণ করেছেন কাদির নামের একজন ব্যবসায়ী। জানা যায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যার সময় নাম দেখানো উচ্ছেদ অভিযানে নামে সড়ক ও জনপথ। হাতে গনা কয়েকটি দোকান উচ্ছেদ করে রহস্যজনক ভাবে উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ করে দেয় সড়ক ও জনপথ। তার কিছুক্ষণ পরে নাসিক ৩ নং ওয়ার্ডের ফটকা কাউন্সিলর শাহজালাল বাদলের চাঁদাবাজ বাহিনী এসে ফুটপাতে উচ্ছেদ বন্ধ করতে ব্যবসায়ী কাদিরের কাছে আবারও মোটা অংকের টাকা দাবি করে। চাঁদাবাজদের মোটা অংকের চাঁদার কথা শুনে সাথে সাথে কাদির স্ট্রোক করে মাটিতে পরে যায়। আশে পাশের ব্যবসায়ীরা কাদিরকে স্থানীয় সুগন্ধা হাসপাতাল নিয়ে গেলে কতর্ব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। কাদির কাসসাফ মাকের্টের সামনে মোবাইলের কাবারের ব্যবসা করতো।

আরও জানা যায়, রমজানের ঈদের আগে কাউন্সিলর বাদল বাহিনীকে লোন তুলে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দিয়ে কাসসাফ মার্কেটের সাথে মোবাইলের কাবারের ব্যবসা করে। তার কিছুদিন পর আবার উচ্ছেদ বন্ধ করার কথা বলে চাঁদাবাজ বাদলের চাঁদাবাজ ও অস্ত্র মামলার আসামী ইসমাইল ও সোহাগ ১০ হাজার টাকা কাদিরের কাছ থেকে নেয়। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রহস্যজনক উচ্ছেদ চালায় সড়ক ও জনপথ। উচ্ছেদ বন্ধ হওয়ার পর পর বাদলের চাঁদাবাজ বাহিনী পূণরায় ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করার সাথে সাথে কাদির স্ট্রোক করে মৃত্যু বরণ করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ কাউন্সিলর শাহজালাল বাদলের চাঁদাবাজ বাহিনীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে ফুটপাত ব্যবসায়ীরা। রমজানের ঈদের আগে প্রতিটি দোকান থেকে এককালিন ২০ হাজার টাকা চাঁদা নেয় বাদলের চাঁদাবাজ বাহিনী। আবার উচ্ছেদ অভিযান বন্ধের নামে ১০ হাজার টাকা চাঁদা নেয় তারা। মঙ্গলবার সড়ক ও জনপথ ফুটপাতে উচ্ছেদ অভিযান চালায়। পরে উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ করে দেয় সড়ক ও জনপথ। তার কিছুক্ষন পরে বাদলের চাঁদাবাজ বাহিনী ফুটপাতে উচ্ছেদ অভিযান বন্ধের নামে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে দোকান প্রতি ২০ হাজার টাকা করে চাঁদা দাবি করে। ব্যবসায়ী কাদিরের কাছে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করলে সাথে সাথে কাদির স্ট্রোক করে মারা যায়। কাদিরের গ্রামের বাড়ী মতলব। সিদ্ধিরগঞ্জে পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকতেন কাদির। কাদিরের পরিবার যাতে করে থানায় মামলা না করে সেজন্য বাদলের চাঁদাবাজ চক্রটি পরিবারটিকে ভয়ভীতি ও ম্যানেজের চেষ্টা করছে বলে জানা যায়।

প্রবীণ একজন আইনজীবি বলেন, এটি একটি হত্যা। চাঁদাবাজ বাদল ও তার বাহিনীকে অবশ্যই আইনের আওতায় এনে এ হত্যার বিচারের দাবি জানায় ফুটপাত ব্যবসায়ীরা।

আরও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ