‘আল্লাহু আকবার’ ধ্বনিতে প্রকম্পিত নারায়ণগঞ্জ

মহানবী (সাঃ) কে জড়িয়ে মর্যাদাহানিমূলক বক্তব্যের প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে নারায়ণগঞ্জ উলামা পরিষদ। সারা দেশব্যাপি গণ আন্দোলনের অংশ হিসেবে জুমআর নামাজের পর শহরের ডিআইটি চত্বর এলাকায় বিশাল বিক্ষোভ সমাবেশর পালন করেন তারা। শহরের বিভিন্ন মসজিদ থেকে মুসুল্লিরা শ্লোগানে শ্লোগানে রাজপথকে মুখরিত করে মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থলে সমবেত হয়। এসময় আল্লাহু আকবার ধ্বণিতে প্রকম্পিত হয় গোটা নারায়ণগঞ্জ।

নারায়ণগঞ্জ ওলামা পরিষদের সভাপতি ও ডিআইটি মসজিদের খতিব আল্লামা আব্দুল আউয়ালের সভাপতিত্বে শুক্রবার (১০ জুন) দুপুরে নগরীর বঙ্গবন্ধু সড়কের কেন্দ্রীয় রেল কলোনী (ডিআইটি) মসজিদের সামনে এই বিক্ষোভ সমাবেশটি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ উলামা পরিষদ নেতা মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান বলেন, আমাদের নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির দুই মুখপাত্র নূপুর শার্মা ও নবীন জন্দালের অবমাননা মূলক বক্তব্যের প্রতিবাদে আজকে সমাবেশ হচ্ছে। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় হল বাংলাদেশ একটি মুসলিম দেশ হলেও এখন পর্যন্ত রাষ্ট্রীয় ভাবে কোন নিন্দা বা প্রতিবাদ জানানো হয়নি। এর ফলাফল জনগন আগামী নির্বাচনে ভ্যালটের মাধ্যমে দিবে। আমাদের ক্ষমতায় আসার লোভ নেই, কিন্তু নবীর জন্য মনে প্রেম আছে। আমি সরকারের কাছে আহ্বান জানাই, অতিদ্রুত সংসদে ধর্ম অবমাননা ও ধর্মীয় অনুভুতিতে যেসব নাস্তিকেরা আঘাত আনে তাদের জন্য আইন পাশ করেন। এদেশের বিরানব্বই ভাগ মানুষ মুসলমান, ক্ষমতায় থাকতে হলে তাদের ভোট নিয়েই আপনাকে ক্ষমতায় থাকতে হবে। ওই ভারতীয় দালালেরা আপনাকে ক্ষমতায় রাখতে পারবে না। তাই মুসলমানদের উপর আঘাত আর দ্বীনের নবীকে নিয়ে কুটুক্তি হলে আপনি চুৃপ করে বসে থাকবেন তা এই দেশের জনগন মেনে নিবে না।

নারায়ণগঞ্জ ওলামা পরিষদের সভাপতি আল্লামা আব্দুল আউয়াল বলেন, আল্লাহর নবীর জন্য যদি বুকে বুলেট আসে তা আমরা বুক পেতে নিব। দ্বীনের নবীকে নিয়ে কেউ বাজে মন্তব্য করলে প্রয়োজনে তার জিব টেনে ছিরে ফেলবো। বিজেপির মুখপাত্র নুপুর শর্মা একজন সাধারণ ব্যক্তি, তিনি তার কথা বলেন নাই। তিনি ওই ভারতের দোষর ইসলাম বিদ্ধেষী দল বিজেপির কথা বলেছেন। এই দল মসজিদ ভেঙ্গে মন্দির স্থাপন করেছে। ভারতীয় মুসলিমদের উপর নির্বিচারে অত্যাচার ও হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছে। আর এর সবই হয়েছে ওই বিজেপি সরকারের নির্দেশে। এসময় তিনি বিজেপি প্রধানকে হুশিয়ারী প্রদান করে বলেন, আপনি ওই নুপুর শর্মাকে দল থেকে সাময়িক অব্যাহতি দিয়ে মুসলিম উম্মাহ্কে আই ওয়াশ করার চেষ্টা করছেন। তাদের গ্রেফতার করে জনসম্মুখে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। নতুবা আপনার এই ইসলাম বিদ্ধেষী বিজেপির সা¤্রাজ্য অচিরেই ধ্বংশ করা হবে। আমি জানতে চাই, সরকার চুপ কেন? সরকার প্রধানকে হুমকি দিয়ে তিনি বলেন, আপনি মনে করেছেন ভারত সরকার আপনাকে ক্ষমতায় বসিয়ে রাখবে। আমরা মাঠে নামলে আপনি গদিতে থাকতে পারবেন না। তাই অনতিবিলম্বে সংসদ থেকে রাষ্ট্রীয়ভাবে নিন্দা জানান। সেই সাথে ভারতীয় হাই কমিশনে নিযুক্ত কমিশনারদের ডেকে এর নিন্দা ফেশ সহ বিচার দাবি করুন। সারা বিশে^র মুসলিম উম্মাহের কাছে করজোরে ক্ষমা চায় তো সে বাঁচতে পারবে। নতুবা ভরতকে ধ্বংশ করে দেওয়া হবে।

তিনি আরোও বলেন, অচিরেই ভারত সরকারের তরফ থেকে যদি কোন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা না নেয়া হয় তবে ভারতীয় দূতাবাশ ঘেরাও করা হবে। এসময় নারায়ণগঞ্জ ওলামা পরিষদের নেতাকর্মী ও বিভিন্ন মসজিদের খতিবেরা উপস্থিত ছিলেন। সমাবেশে মামুনল হক সহ সকল ইসলামী দল গুলোর কারাবন্দি নেতাদের মুক্তি কামনা করা হয়। সমাবেশ শেষে মুসলিম উম্মাহের জন্য বিশেষ ভাবে দোয়া করেন ডিআইটি মসজিদের খতিব আল্লামা আব্দুল আউয়াল।

আরোও পড়ুন

- Advertisement -

কমেন্ট করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

ডেইলি নারায়ণগঞ্জে প্রকাশিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি এবং ভিডিও কন্টেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ